fbpx

এলআইসিতে ৫৯০ অ্যাসিঃ অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ অফিসার নিয়োগ

লাইফ ইনশিওরেন্স কর্পোরেশন অব ইন্ডিয়াতে ৫৯০ জন অ্যাসিস্ট্যান্ট অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ অফিসার (জেনারেলিস্ট, আইটি, চার্টার্ড অ্যাকাউন্ট্যান্ট, অ্যাকচুয়ারিয়াল, রাজভাষা) নিয়োগ করা হবে। নিচের যোগ্যতার যে-কোনো ভারতীয়রা আবেদন করতে পারবেন।

শূন্যপদের বিন্যাস: এএও (জেনারেলিস্ট): ৩৫০ (অসংরক্ষিত ১৪০, তপশিলি জাতি ৫৫, তপশিলি উপজাতি ৩৫, ওবিসি ৮৫, ইডব্লুএস অর্থাৎ ইকোনমিক্যালি উইকার সেকশন ৩৫)। এইসবের মধ্যে ৩টি এলডি, ৫টি দৃষ্টি প্রতিবন্ধী, ৪টি শ্রবণ প্রতিবন্ধী ও ২টি আইডি/ এমডিদের জন্য সংরক্ষিত।

এএও (আইটি): ১৫০ (অসংরক্ষিত ৬০, তপশিলি জাতি ২৫, তপশিলি উপজাতি ১৪, ওবিসি ৩৬, ইডব্লুএস ১৫)। এইসবের মধ্যে ১টি এলডি, ১টি শ্রবণ প্রতিবন্ধী ও ৪টি আইডি/ এমডিদের জন্য সংরক্ষিত।

এএও (সিএ): ৫০ (অসংরক্ষিত ২০, তপশিলি জাতি ৭, তপশিলি উপজাতি ৫, ওবিসি ১৩, ইডব্লুএস ৫)। এইসবের মধ্যে ১টি শ্রবণ প্রতিবন্ধী ও ১টি দৃষ্টি প্রতিবন্ধীদের জন্য সংরক্ষিত।

এএও (অ্যাকচুয়ারিয়াল): ৩০ (অসংরক্ষিত ১২, তপশিলি জাতি ৪, তপশিলি উপজাতি ৩, ওবিসি ৮, ইডব্লুএস ৩)। এইসবের মধ্যে ১টি এলডিদের জন্য সংরক্ষিত।

এএও (রাজভাষা): ১০ (অসংরক্ষিত ৫, তপশিলি জাতি ১, তপশিলি উপজাতি ১, ওবিসি ২, ইডব্লুএস ১)। এইসবের মধ্যে ১টি এলডিদের জন্য সংরক্ষিত।

বয়সসীমা: ১ মার্চ ২০১৯ তারিখের হিসেবে বয়স হতে হবে ২১-৩০ বছরের মধ্যে (জন্মতারিখ ২ মার্চ ১৯৮৯ থেকে ১ মার্চ ১৯৯৮)। সংরক্ষিত শ্রেণির প্রার্থীরা নিয়ম অনুযায়ী বয়সের ঊর্ধ্বসীমায় ছাড় পাবেন।

মূল বেতন: ৩২৭৯৫-৬২৩১৫ টাকা সঙ্গে অন্যান্য ভাতা।

যোগ্যতা: জেনারেলিস্ট: যে-কোনো শাখায় ব্যাচেলর ডিগ্রি।

আইটি: কম্পিউটার সায়েন্স/ আইটি/ ইলেক্ট্রনিক্স ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে গ্র্যাজুয়েশন বা এমসিএ বা এমএসসি (কম্পিউটার সায়েন্স)।

চার্টার্ড অ্যাকাউন্ট্যান্ট: ব্যাচেলর ডিগ্রি সঙ্গে ইনস্টিটিউট অব চার্টার্ড অ্যাকাউন্টস অব ইন্ডিয়া থেকে অন্তিম পরীক্ষা পাশ। ইনস্টিটিউট অব চার্টার্ড অ্যাকাউন্টস অব ইন্ডিয়ার অ্যাসোশিয়েট মেম্বার হতে হবে।

অ্যাকচুয়ারিয়াল: যে-কোনো শাখায় ব্যাচেলর ডিগ্রি, সঙ্গে ইনস্টিটিউট অব অ্যাকচুয়ারিস অব ইন্ডিয়া থেকে সিটি১, সিটি৫ এবং সঙ্গে ওই বিষয়ের আরও ৪ বা ততোধিক পেপার পাশ।

রাজভাষা: হিন্দিতে পোস্ট গ্র্যাজুয়েট সঙ্গে ব্যাচেলর ডিগ্রি স্তরে ইংরেজি একটি বিষয় হিসেবে নিয়ে থাকতে হবে। অথবা ইংরেজিতে পোস্ট গ্র্যাজুয়েট সঙ্গে ব্যাচলের ডিগ্রি স্তরে হিন্দি একটি বিষয় হিসেবে নিয়ে থাকতে হবে। অথবা সংস্কৃতে পোস্ট গ্র্যাজুয়েট সঙ্গে ব্যাচেলর ডিগ্রি স্তরে ইংলিশ ও হিন্দি বিষয় হিসেবে নিয়ে থাকতে হবে।

সব শিক্ষাগত যোগ্যতা সম্পূর্ণ হতে হবে ১ মার্চ ২০১৯ তারিখের মধ্যে।

প্রার্থী বাছাই পদ্ধতি: লিখিত পরীক্ষা, ইন্টারভিউ ও মেডিকেল টেস্টের মাধ্যমে প্রার্থী বাছাই করা হবে। পরীক্ষা হবে দুটি পর্যায়ে— প্রিলিমিনারি ও মেইন। প্রিলিমিনারি পরীক্ষায় থাকবে রিজনিং (৩৫টি প্রশ্ন, ৩৫ নম্বর), কোয়ান্টিটেটিভ অ্যাপ্টিটিউড (৩৫টি প্রশ্ন, ৩৫ নম্বর), ইংলিশ ল্যাঙ্গুয়েজ (৩০টি প্রশ্ন, ৩০ নম্বর)। পরীক্ষার সময় ১ ঘণ্টা। ইংলিশ ল্যাঙ্গুয়েজের নম্বর ধরা হবে না, কিন্তু ন্যূনতম সাফল্যমান অর্জন করতেই হবে। প্রিলিমিনারি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হলে মেইন পরীক্ষা দিতে পারবেন। অন্যান্য প্রাসঙ্গিক তথ্য ওয়েবসাইট থেকে জানা যাবে।

আবেদনের ফি: ৬০০ টাকা। তপশিলি জাতি/ উপজাতি ও শারীরিক প্রতিবন্ধীদের ক্ষেত্রে ১০০ টাকা। ডেবিট কার্ড (রুপে/ ভিসা/ মাস্টার/ ম্যাস্ট্রো), ক্রেডিট কার্ড, ইন্টারনেট ব্যাঙ্কিং, আইএমপিএস, ক্যাশ কার্ড/ মোবাইল ওয়ালেটের মাধ্যমে ফি দেওয়া যাবে। ট্র্যানজ্যাকশন সম্পূর্ণ হলে একটি ই-রিসিট পাওয়া যাবে, ই-রিসিটের প্রিন্ট-আউট নিয়ে রাখতে হবে।

আবেদনের পদ্ধতি: www.licindia.in ওয়েবসাইটে গিয়ে অনলাইন আবেদন করতে হবে। বৈধ ইমেল আইডি ও মোবাইল নম্বর থাকতে হবে। অনলাইন আবেদন করার আগে ছবি, স্বাক্ষর, বাঁ হাতের বুড়ো আঙুলের ছাপ ও হাতে লেখা ডিক্ল্যারেশন স্ক্যান করে রাখতে হবে। অনলাইন আবেদন করার সময় নির্দিষ্ট স্থানে ওগুলি আপলোড করতে হবে। সম্প্রতি তোলা পাসপোর্ট মাপের রঙিন ছবি হতে হবে, ডইমেনশন ২০০×২৩০ পিক্সেল (বাঞ্ছনীয়ত), মাপ হতে হবে ২০-৫০ কেবির মধ্যে। সাদা কাগজে কালো কালির পেন দিয়ে স্বাক্ষর করতে হবে, ডাইমেনশন ১৪০×৬০ পিক্সেল (বাঞ্ছনীয়ত), মাপ হতে হবে ১০-২০ কেবির মধ্যে। বাঁ হাতের বুড়ো আঙুলের ছাপের ডাইমেনশন হতে হবে ২৪০×২৪০ পিক্সেল (২০০ ডিপিআই), মাপ ২০-৫০ কেবির মধ্যে। হাতে লেখা ডিক্ল্যারেশনের ডাইমেনশন ৮০০×৪০০ পিক্সেল (২০০ ডিপিআই), মাপ ৫০-১০০ কেবির মধ্যে। স্ক্যানার রেজলিউশন হতে হবে ২০০ ডিপিআই। অনলাইন আবেদন করা যাবে ২২ মার্চ ২০১৯ তারিখ পর্যন্ত।

গুরুত্বপূর্ণ তারিখ: অনলাইন আবেদন করা যাবে ২২ মার্চ ২০১৯ তারিখ পর্যন্ত। প্রিলিমিনারি পরীক্ষার জন্য কললেটার ডাউনলোড করা যাবে ২২ এপ্রিল থেকে ৩০ এপ্রিল ২০১৯ পর্যন্ত। প্রিলিমিনারি পরীক্ষা হবে ৪ ও ৫ মে ২০১৯ তারিখে। মেইন পরীক্ষা হবে ২৮ জুন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *