fbpx

‘ফেক’ সার্টিফিকেট থেকে চাকরি, চিন্তা বাড়ছে কর্মপ্রার্থীদের মধ্যে

ফেক ! বিষয়টি নিয়ে সাম্প্রতিককালে অসংখ্য পর্যালোচনা শুরু হয়েছে। বিষয়টি প্রভাব বাড়িয়েছে শিক্ষা ও চাকরি জগতেও।

কয়েক সপ্তাহ আগেই রাজ্যের পাবলিক সার্ভিস কমিশনের নকল বা ফেক ওয়েবসাইট নিয়ে জীবিকা দিশারীতে জানানো হয়েছিল। তার কয়েক মাস আগে রাজ্যের স্কুল সার্ভিস কমিশনের এবং রাজ্যের গ্রুপ ডি রিক্রুটমেন্ট বোর্ডের ওয়েবসাইট একেবারে হুবুহু ভাবে নকল করা হয় এবং সেটির ইউআরএল বা বলা যেতে পারে ওয়েব এড্রেসটি ছড়িয়ে দেওয়া হয় বিভিন্নভাবে। যতদিন যাচ্ছে, এই ফেক বিষয়টি আরও বিপজ্জনক হয়ে উঠতে চলেছে ছাত্র-ছাত্রী থেকে শুরু করে সরকারি চাকরিপ্রার্থী মহলে।

প্রথমত, ফেক বা নকল ওয়েবসাইটগুলিকে আসল বা অফিসিয়াল ওয়েবসাইট ভেবে প্রচুর প্রার্থী সেই ওয়েবসাইট চেক করেন, তাতে ভিজিটর সংখ্যা থেকে ওয়েবসাইট নির্মাণকারীর উপার্জন হয় এবং দ্বিতীয়ত এই সমস্ত ওয়েবসাইটগুলোর মাধ্যমে কোনোভাবে অনলাইন মানি ট্রান্সফার বা ট্রান্সাকশন করে সেখান থেকে অবৈধভাবে উপার্জনের জন্য এই ওয়েবসাইটগুলো নির্মাণ করা হয়।

এই ধরণের ওয়েবসাইটগুলি  একদিকে যেমন ছাত্র-ছাত্রীদের ভোগান্তি বাড়িয়ে তোলে , তেমনই তাদের আর্থিক ক্ষয় বা বেআইনি কার্যকলাপের মধ্যে ফাঁদ হিসাবে প্রভাব ফেলে। শুধুমাত্র কোনো রিক্রুটমেন্ট বোর্ডেরই নয়, মাধ্যমিক বা উচ্চমাধ্যমিক স্তরের বোর্ড থেকে বিশ্ববিদ্যালয় পর্যন্ত রয়েছে “ফেক”-এর তালিকায়। ছাত্র-ছাত্রীদের নিজেদের সুবিধার্থে কোনটি আসল বা নকল সেটি সম্পর্কে তথ্য জানার জন্য “https://mhrd.gov.in/” ওয়েবসাইটটি নজর রাখা উচিত। এছাড়াও প্রতি বছরই ইউনিভার্সিটি গ্র্যান্ট কমিশন (ইউজিসি) ফেক বা অবৈধ বিশ্ববিদ্যালয় বা প্রতিষ্ঠানের তালিকা প্রকাশ করে থাকে। সেটি চেক করার জন্যে রয়েছে – https://www.ugc.ac.in/page/Fake-Universities.aspx

সম্প্রতি, বীমা সংস্থা এলআইসি নিয়ে বেশ কিছু বেআইনি কার্যকলাপ চলছে। এলআইসি অফিসার/এজেন্ট পরিচয় দিয়ে আপনার করা এলআইসি পলিসি নিয়ে প্রতারণা হচ্ছে, চাকরি পাইয়ে দেওয়ার কথাও বলা হচ্ছে। এর পাশাপাশি বিভিন্ন জেলায় এসএসসি, পিএসসি, ফুড ডিপার্টমেন্ট-এ মোটা অঙ্কের অর্থের বিনিময়ে চাকরির নিয়োগপত্র পাইয়ে দেওয়ার চক্র তো রয়েছেই।

সরকারি চাকরি বা বিভিন্ন নিয়োগ পর্ষদের ক্ষেত্রে পরীক্ষার্থী বা চাকরি প্রাথীদের নজর রাখতে হবে ওই নিয়োগ পর্ষদের বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত হাওয়া তাদের বিজ্ঞপ্তিতে। সেখানে তাদের নিয়োগ সংক্রান্ত তথ্য,  নিজস্ব ওয়েবসাইট ইউআরএল দেওয়া থাকে। একমাত্র সেই ওয়েবসাইটই ফলো করা উচিত। অনেক ক্ষেত্রেই ওয়েবসাইট বা অনলাইনে বিভিন্ন ডিগ্রি বা সার্টিফিকেট পাইয়ে দেওয়ার মতো প্রলোভনও দেখানো হয়। সেক্ষেত্রে, সরাসরি সেই প্রতিষ্ঠান বা বিশ্ববিদ্যালয় যোগাযোগ করে বিষয়গুলি যাচাই করে নেওয়াও প্রয়োজন রয়েছে।

যে সমস্ত ওয়েবসাইটগুলোতে সর্বাধিক চাকরিপ্রার্থীরা সার্চ করেন, যেরকম এসএসসি (আসল ওয়েবসাইট –https://ssc.nic.in/), রেলওয়ে রিক্রুটমেন্ট বোর্ড (আসল ওয়েবসাইট – http://www.indianrailways.gov.in), রাজ্যের পাবলিক সার্ভিস কমিশন (আসল ওয়েবসাইট – https://www.pscwbonline.gov.in/), স্কুল সার্ভিস কমিশন (আসল ওয়েবসাইট –http://www.westbengalssc.com/), ইন্ডিয়ান পোস্ট(আসল ওয়েবসাইট –https://www.indiapost.gov.in), এই ওয়েবসাইটগুলো ‘ফেক ‘ বা নকল করার প্রবণতা সবথেকে বেশি থাকে, তাই এই সমস্ত ওয়েবসাইট চেকিং বিশেষ সাবধানতা অবলম্বনের প্রয়োজনীয়তা রয়েছে।

 

Fake Website, Fake Govt Job Website

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *