fbpx

লজিস্টিকে কাজের সুযোগ বাড়ছে ভবিষ্যতে

লজিস্টিক কী ?

জাতীয়-আন্তর্জাতিক  বাণিজ্যিক সম্পর্কের পরিসরে ব্যবসায়িক কাজকর্মের সূত্রে “লজিস্টিক্স” শব্দটি বর্তমানে ব্যবহার করা হয়। পণ্যভিত্তিক কোম্পানিগুলিতে আলাদা করে তৈরি হয় লজিস্টিক্স ডিপার্টমেন্ট। কারখানা বা গুদাম থেকে বিক্রয়কেন্দ্র পর্যন্ত নিয়মমাফিক এবং বৈজ্ঞানিক পদ্ধতিতে পণ্য সরবরাহের পদ্ধতিটিকে বজায় রাখার জন্য প্রয়োজন লজিস্টিকের। অনেক সময় এই বিষয়টিকে সাপ্লাই চেন ম্যানেজমেন্ট বলেও অভিহিত করা হয়। পরিকল্পনা, অ্যাসেমব্লিং (Assembling), স্টোরিং (Storing), ডেসপ্যাচিং (Dispatching), প্যাকেজিং (Packaging), সিকিউরিটি পাসিং  এই বিষয়গুলি নিয়ে সাপ্লাই চেন সিস্টেম গড়ে ওঠে। অত্যন্ত পেশাদারিত্বের সঙ্গে বিষয়গুলিকে সামলাতে হয় লজিস্টিক্স অফিসার বা ম্যানেজারদের। এই সিস্টেমের উপর সংশ্লিষ্ট কোম্পানির ব্যবসায়িক সাফল্য অনেকাংশেই নির্ভর করে।

কিরকম কোর্স রয়েছে ?

লজিস্টিক্স বিষয়টি নিয়ে সাধারণত ডিপ্লোমা, পোস্ট গ্র্যাজুয়েট ডিপ্লোমা বা সার্টিফিকেট কোর্স হয়ে থাকে। উচ্চমাধ্যমিকে বাণিজ্য শাখায় পড়া থাকলে এই পাঠক্রমে সুবিধা হতে পারে। লজিস্টিক্স নিয়ে ম্যানেজমেন্ট কোর্সও করা যায়, তাতে পেশাগত সাফল্য তুলনামূলকভাবে বেশি। কোথাও-কোথাও এমবিএ কোর্সে স্পেশ্যালাইজেশন হিসাবে লজিস্টিক্সকে বেছে নেওয়া যেতে পারে।

যোগ্যতা কী লাগে ?

উচ্চমাধ্যমিক পাশের পর স্নাতক স্তরে ৫০ শতাংশ নম্বর থাকলে বিষয়টি নিয়ে ২ বছরের পোস্ট গ্র্যাজুয়েট ডিপ্লোমা করা যেতে পারে। এর বাইরেও এক বছরের ডিপ্লোমা কোর্স হয়ে থাকে। গ্র্যাজুয়েশনে ভালো নম্বর এবং ইংরাজিতে দক্ষতা থাকলে লজিস্টিক্স নিয়ে ম্যানেজেমন্ট কোর্সেও ভর্তি হওয়া যায়। সাপ্লাই চেন ম্যানেজমেন্ট, ট্রান্সপোর্টেশন ইকনমিক্স বা ট্রান্সপোর্টেশন ক্যারিয়ার ম্যানেজমেন্ট নিয়েও এই পেশায় আসা যায়। এটি এমন একটি কাজ, যার জন্য বলিয়ে-কইয়ে গুণ, চিঠি-চাপাটির দক্ষতা এবং সমন্বয়সাধনের ক্ষমতা বিশেষ দরকার। বর্তমানে কাজের সুবিধার্থে উন্নত প্রযুক্তি তথা কম্পিউটার ব্যবস্থার মাধ্যমে সাপ্লাই চেন সিস্টেম বজায় রাখা হয়। স্বাভাবিকভাবেই কম্পিউটারের গোড়ার জ্ঞান তো বটেই, এর বাইরেও লজিস্টিক্স কাজের উপযোগী যে সমস্ত সফটওয়্যারে কাজ হয়ে থাকে, সে বিষয়েও ভালো জ্ঞান থাকা দরকার।

কোথায় পড়া যেতে পারে ?

ইন্ডিয়ান ইনস্টিটিউট অব লজিস্টিক (অন্ধ্রপ্রদেশ), ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব এগ্রিকালচার এক্সটেনশন ম্যানেজমেন্ট (হায়দ্রাবাদ), কলকাতা সেন্ট জেভিয়ার্স কলেজ থেকে লজিস্টিকস এন্ড সাপ্লাই চেন ম্যানেজমেন্ট নিয়ে পোস্ট গ্র্যাজুয়েট ডিপ্লোমা, ইনস্টিটিউট অব লজিস্টিক এন্ড এভিয়েশন ম্যানেজমেন্ট (যাদবপুর ইউনিভার্সিটি ক্যাম্পাস), কলকাতার ইন্ডিয়ান ইনস্টিটিউট অব ম্যানেজমেন্ট-এ  (জোকা) সাপ্লাই চেন ম্যানেজমেন্ট নিয়ে পড়ানো হয়।

কাজ কীরকম ?

ভারতের রিটেল, ম্যানুফাকচারিং, ইনফ্রাস্ট্রাকচার কোম্পানিগুলিতে লজিস্টিক্স বা সাপ্লাইন চেন ম্যানেজমেন্ট সিস্টেমে প্রশিক্ষিত কর্মী হিসাবে কাজের সুযোগ প্রচুর। উৎপাদিত পণ্য সঠিকভাবে স্টোর হয়েছে কিনা, সেখান থেকে সঠিক সময়ে সঠিক জায়গায় সরবরাহ করা হয়েছে কিনা, আউটলেট পর্যন্ত সঠিকভাবে পৌঁছলো কিনা সমস্ত বিষয় যে নিয়মের মাধ্যমে হয়, সেটিকে নিয়ন্ত্রণ করা এবং সময়ানুবর্তিতা এবং নিয়মানুবর্তিতা বজায় রাখার গুরুদায়িত্ব পালন করতে হয় লজিস্টিক্স ম্যানেজাদের। সাপ্লাই চেন ম্যানেজার, ডিসপ্যাচ সুপারভাইজার, মেটিরিয়াল হ্যান্ডলিং সুপারভাইজার, ইনভেন্টরি ম্যানেজার, এক্সপোর্ট ম্যানেজার, ট্রান্সপোর্ট ম্যানেজার, টেন্ডার অ্যানালিস্ট, প্রোকিওরমেন্ট ম্যানেজার, প্যাকেজিং, সিকিউরিটি এইরকম নানারকম পদে কাজ করা যেতে পারে। লজিস্টিক্স ডিপার্টমেন্টের সঙ্গে ক্লারিক্যাল বা অন্যান্য বিভাগের যোগসাজোশ রয়েছে। ফলে সেই সমস্ত বিভাগেও লজিস্টিক্স নিয়ে পড়াশুনা কর প্রার্থীদের সুযোগ থাকে। ম্যানেজমেন্ট  ট্রেনি হিসাবে কাজ শুরু করে এই পেশায় কাজ ও অভিজ্ঞতার মাধ্যমে পদোন্নতি করারও সুযোগ রয়েছে। পণ্য সরবরাহের কাজ স্থল, জল বা আকাশপথেও হয়ে থাকে, পণ্য সরবরাহের সঙ্গে আর্থিক লেনদেন বিষয়টিও জড়িয়ে থাকে, ফলত ছোটোখাটো অসংখ্য সমস্যা কাটিয়ে নিয়মমাফিক কাজ করার জন্য সচেষ্ট থাকতে হবে। বিভিন্ন বহুজাতিক কোম্পানি, প্রোডাকশন ইউনিট, কুরিয়ার সার্ভিস-এ কাজ তো রয়েছেই। এর পাশাপাশি অনলাইন মার্কেটিং-এর জমানা শুরু হয়ে যাওয়ার পর থেকে আরেকটি নতুন কাজের জায়গা তৈরী হয়েছে এই পেশার জন্যে। আগামী দিনে এই পেশায় সংস্থানের সম্ভাবনা আরও বেশি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *