fbpx

এয়ারফোর্সে ট্রেনিং দিয়ে পুরুষ-মহিলা অফিসার

ভারতীয় বিমান বাহিনীতে এয়ার ফোর্স কমন অ্যাডমিশন অনলাইন টেস্ট এন্ট্রি, এনসিসি স্পেশ্যাল এন্ট্রি ও মেটিওরোলজি ব্রাঞ্চে (ফ্লাইং, জেনারেল ডিউটি, টেকনিক্যাল এবং নন-টেকনিক্যাল) জুলাই ২০২০ কোর্সে প্রশিক্ষণ দিয়ে প্রায় তিনশো তরুণ-তরুণী অফিসার নিয়োগ করা হবে শর্ট শার্ভিস কমিশন ও পার্মানেন্ট কমিশনে। নিচের যোগ্যতার যে-কোনো ভারতীয়রা আবেদন করতে পারবেন।

ব্রাঞ্চ, কোর্সের নম্বর ও শূন্যপদ: অ্যাফক্যাট (এএফসিএটি) এন্ট্রি: ফ্লাইং, কোর্স নম্বর ২০৮/২০এফ/এসএসসি/এমঅ্যান্ডডব্লু। শর্ট সার্ভিস কমিশনে শূন্যপদ ৬০।

গ্রাউন্ড ডিউটি (টেকনিক্যাল): ২০৭/২০টি/পিসি/এম, ২০৭/২০টি/এসএসসি/এমঅ্যান্ডডব্লু। এ ই (এল)— পার্মানেন্ট কমিশনে শূন্যপদ ২৮¸ শর্ট সার্ভিস কমিশনে শূন্যপদ ৪২। এই (এ ম)— পার্মানেন্ট কমিশনে ১২, শর্ট সার্ভিস কমিশনে ২০।

গ্রাউন্ট ডিউটি (নন-টকেনিক্যাল): ২০৭/২০জি/পিসি/এম, ২০৭/২০জি/এসএসসি/এমঅ্যান্ডডব্লু। অ্যাডমিন— পার্মানেন্ট কমিশনে ১৬, শর্ট সার্ভিস কমিশনে ২৫। এডুকেশন— পার্মানেন্ট কমিশনে ৬, শর্ট সার্ভিস কমিশনে ১০।

এনসিসি স্পেশ্যাল এন্ট্রি: ফ্লাইং: ২০৮/২০এফ/পিসি/এম, ২০৮/২০এফ/এসএসসি/এমঅ্যান্ডডব্লু: কম্বাইন্ড ডিফেন্স সার্ভিসেস এগজামিনেশনের থেকে পার্মানেন্ট কমিশনের ১০ শতাংশ আসন ও অ্যাফক্যাটের শর্ট সার্ভিস কমিশনের ১০ শতাংশ আসন।

মেটিওরোলজি ব্রাঞ্চ: গ্রাউন্ড ডিউটি (নন-টেকনিক্যাল): ২০৭/২০জি/পিসি/এম, ২০৭/২০জি/এসএসসি/এমঅ্যান্ডডব্লু। পার্মানেন্ট কমিশনে ১০, শর্ট সার্ভিস কমিশনে ১৪।

বয়সসীমা: ফ্রাইং ব্রাঞ্চের ক্ষেত্রে ১ জুলাই ২০২০ তারিখের হিসেবে বয়স হতে হবে ২০-২৪ বছরের মধ্যে (জন্মতারিখ ২ জুলাই ১৯৯৬ – ১ জুলাই ২০০০ সালের মধ্যে)।

জেনারেল ডিউটি (টেকনিক্যাল/ নন-টেকনিক্যাল শাখা)-র ক্ষেত্রে ১ জুলাই ২০২০ তারিখের হিসেবে ২০-২৬ বছরের মধ্যে (জন্মতারিখ ২ জুলাই ১৯৯৪- ১ জুলাই ২০০০ সালের মধ্যে)।

বেতনক্রম: ফ্লাইং অফিসার পদের ক্ষেত্রে ৫৬১০০-১১০৭০০ টাকা। সঙ্গে মিলিটারি সার্ভিস পে ও আরও অনেক সুযোগ-সুবিধা। ফ্লাইং ক্যাডেটরা ট্রেনিং চলাকালীন ৫৬১০০ টাকা করে প্রতি মাসে স্টাইপেন্ড পাবেন।

যোগ্যতা: ১) ফ্লাইং ব্রাঞ্চ: কোনো স্বীকৃত বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ন্যূনতম ৬০ শতাংশ নম্বর নিয়ে যে-কোনো শাখায় গ্র্যাজুয়েট এবং অথবা ন্যূনতম ৬০ শতাংশ নম্বর নিয়ে বিএ/ বিটেক (চার বছরের) অথবা কোনো স্বীকৃত বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ন্যূনতম ৬০ শতাংশ নম্বর নিয়ে অ্যাসোশিয়েট মেম্বারশিপ অব ইনস্টিটিউশন অব ইঞ্জিনিয়ার্স বা অ্যারোনটিক্যাল সোসাইটি অব ইন্ডিয়া থেকে সেকশন এ ও বি পরীক্ষা পাশ। প্রসঙ্গত, ১০+২ স্তরে ম্যাথমেটিক্স এবং ফিজিক্সে ন্যূনতম ৬০ শতাংশ নম্বর নিয়ে পাশ।

২) গ্রাউন্ড ডিউটি (টেকনিক্যাল)- এএ) অ্যারোনটিক্যাল ইঞ্জিনিয়ার (ইলেক্ট্রনিক্স) এই-এল: ১০+২ স্তরে ফিজিক্স এবং ম্যাথমেটিক্সে ন্যূনতম ৬০ শতাংশ নম্বর সহ পাশ সঙ্গে কোনো স্বীকৃত বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইঞ্জিনিয়ারিং/ টেকনোলজিতে চার বছরের গ্র্যাজুয়েশন/ ইন্টিগ্রেটেড প্সোট গ্র্যাজুয়েশন অথবা কোনো স্বীকৃত বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ন্যূনতম ৬০ শতাংশ নম্বর নিয়ে অ্যাসোশিয়েট মেম্বারশিপ অব ইনস্টিটিউশন অব ইঞ্জিনিয়ার্স বা অ্যারোনটিক্যাল সোসাইটি অব ইন্ডিয়া থেকে সেকশন এ ও বি পরীক্ষা পাশ। সমতুল ডিসিপ্লিনগুলো হল—

কমিউনিকেশন ইঞ্জিনিয়ারিং, কম্পিউটার ইঞ্জিনিয়ারিং/ টেকনোলজি, কম্পিউটার ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড অ্যাপ্লিকেশন, কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং/ টেকনোলজি, ইলেক্ট্রিক্যাল অ্যান্ড কম্পিউটার ইঞ্জিনিয়ারিং, ইলেক্ট্রক্যাল অ্যান্ড ইলেক্ট্রনিক্স ইঞ্জিনিয়ারিং, ইলেক্ট্রিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং, ইলেক্ট্রনিক্স ইঞ্জিনিয়ারিং/ টেকনোলজি, ইলেক্ট্রনিক্স সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং, ইলেক্ট্রনিক্স, ইলেক্ট্রনিক্স অ্যান্ড কমিউনিকেশন ইঞ্জিনিয়ারিং ইলেক্ট্রনিক্স অ্যান্ড কম্পিউটার সায়েন্স, ইলেক্ট্রনিক্স এবং/ অথবা টেলিকমিউনিকেশন ইঞ্জিনিয়ারিং, ইলেক্ট্রনিক্স এবং/ অথবা টেলিকমিউনিকেশন ইঞ্জিনিয়ারিং (মাইক্রোওয়েভ), ইলেক্ট্রনিক্স অ্যান্ড কম্পিউটার ইঞ্জিনিয়ারিং, ইলেক্ট্রনিক্স কমিউনিকেশন অ্যান্ড ইনস্ট্রুমেন্টেশন ইঞ্জিনিয়ারিং, ইলেক্ট্রনিক্স ইনস্ট্রুমেন্ট অ্যান্ড কন্ট্রোল, ইলেক্ট্রনিক্স ইনস্ট্রুমেন্ট অ্যান্ড কন্ট্রোল ইঞ্জিনিয়ারিং, ইনস্ট্রুমেন্ট অ্যান্ড কন্ট্রোল ইঞ্জিনিয়ারিং, ইনস্ট্রুমেন্ট অ্যান্ড কন্ট্রোল ইঞ্জিনিয়ারিং, ইনফরমেশন টেকনোলজি।

এবি) ১০+২ স্তরে ফিজিক্স এবং ম্যাথমেটিক্সে ন্যূনতম ৬০ শতাংশ নম্বর সহ পাশ সঙ্গে কোনো স্বীকৃত বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইঞ্জিনিয়ারিং/ টেকনোলজিতে চার বছরের গ্র্যাজুয়েশন/ ইন্টিগ্রেটেড পোস্ট গ্র্যাজুয়েশন অথবা কোনো স্বীকৃত বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ন্যূনতম ৬০ শতাংশ নম্বর নিয়ে অ্যাসোশিয়েট মেম্বারশিপ অব ইনস্টিটিউশন অব ইঞ্জিনিয়ার্স বা অ্যারোনটিক্যাল সোসাইটি অব ইন্ডিয়া থেকে সেকশন এ ও বি পরীক্ষা পাশ।

এক্ষেত্রে সমতুল ডিসিপ্লিনগুলো হল—

অ্যারোস্পেস ইঞ্জিনিয়ারিং, অ্যারোনটিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং, এয়ারক্র্যাফ্ট মেন্টেন্যান্স ইঞ্জিনিয়ারিং, মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং, মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড অটোমেশন, মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং (প্রোডাকশন), মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং (রিপেয়ার অ্যান্ড মেন্টেন্যান্স), মেকাট্রনিক্স, ইন্ডাস্ট্রিয়াল ইঞ্জিনিয়ারিং।

গ্রাউন্ড ডিউটি (নন-টেকনিক্যাল): ১) অ্যাডমিনিস্ট্রেশন অ্যান্ড লজিস্টিক্স: কোনো স্বীকৃত বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ন্যূনতম ৬০ শতাংশ নম্বর নিয়ে যে কোনো শাখায় গ্র্যাজুয়েট বা সমতুল অথবা ১০+২ স্তরে ফিজিক্স এবং ম্যাথমেটিক্সে ন্যূনতম ৬০ শতাংশ নম্বর সহ পাশ সঙ্গে কোনো স্বীকৃত বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইঞ্জিনিয়ারিং/ টেকনোলজিতে চার বছরের গ্র্যাজুয়েশন/ ইন্টিগ্রেটেড প্সোট গ্র্যাজুয়েশন অথবা কোনো স্বীকৃত বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ন্যূনতম ৬০ শতাংশ নম্বর নিয়ে অ্যাসোসিয়েট মেম্বারশিপ অব ইনস্টিটিউশন অব ইঞ্জিনিয়ার্স বা অ্যারোনটিক্যাল সোসাইটি অব ইন্ডিয়া থেকে সেকশন এ ও বি পরীক্ষা পাশ।

২) এডুকেশন: ন্যূনতম ৫০ শতাংশ নম্বর নিয়ে ইংরেজি/ ফিজিক্স/ ম্যাথমেটিক্স/ কেমিস্ট্রি/ স্ট্যাটিস্টিক্স/ ইন্টারন্যাশনাল রিলেশন/ ইন্টারন্যাশনাল স্টাডিজ/ ডিফেন্স স্টাডিজ/ সাইকোলজি/ কম্পিউটার সায়েন্স/ আইটি/ ম্যানেজমেন্ট/ মাস কমিউনিকেশন/ জার্নালিজম/ পাবলিক রিলেশনে এমবিএ/ এমসিএ বা এমএ/ এমএসসি।

এনসিসি স্পেশ্যাল এন্ট্রি (ফ্লাইং ব্রাঞ্চ): এনসিসি এয়ার উইং সিনিয়র ডিভিশন `সি’ সার্টিফিকেট। ১০+২ স্তরে ম্যাথমেটিক্স ও ফিজিক্সে ৬০ শতাংশ নম্বর নিয়ে পাশ। যে কোনো শাখায় ৬০ শতাংশ নম্বর নিয়ে তিন বছরের স্নাতক অথবা ন্যূনতম ৬০ শতাংশ নম্বর নিয়ে চার বছরের বিই/ বিটেক।

মেটিওরোলজি: ম্যাথমেটিক্স/ স্ট্যাটিস্টিক্স/ জিওগ্রাফি/ কম্পিউটার অ্যাপ্লিকেশনে/ এনভায়রনমেন্টাল সায়েন্স/ অ্যাপ্লায়েড ফিজিক্স/ ওশেনোগ্রাফি/ মেটিওরোলজি/ এগ্রিকালচারাল মেটিওরোলজি/ ইকোলজি অ্যান্ড এনভায়রনমেন্ট/ জিওফিজিক্স/ এনভায়রনমেন্টাল বায়োলজি বিষয়ে মোট অন্তত ৫০ শতাংশ নম্বর নিয়ে পোস্ট গ্র্যাজুয়েট ডিগ্রি। সেই সঙ্গে গ্র্যাজুয়েশন ম্যাথস এবং ফিজিক্সে থাকতে হবে এবং এই দুই বিষয়ের প্রতিটিতে অন্তত ৫৫ শতাংশ নম্বর পেয়ে থাকতে হবে। চূড়ান্ত বর্ষের প্রার্থীরাও আবেদন করতে পারবেন, তবে তাঁদের ১৫ নভেম্বর ২০১৭ তারিখের মধ্যে মূল বা প্রভিশন্যাল ডিগ্রি সার্টিফিকেট দাখিল করতে হবে।

শারীরিক মাপজোক: ফ্লাইং ব্রাঞ্চের (পুরুষ ও মহিলা) ক্ষেত্রে ১৬২.৫ সেন্টিমিটার। গ্রাউন্ড ডিউটি (টেকনিক্যাল/ নন টেকনিক্যাল) পুরুষ প্রার্থীদের উচ্চতা ১৫৭.৫ সেন্টিমিটার, মহিলা প্রার্থীদের ক্ষেত্রে ১৫২ সেন্টিমিটার। সবক্ষেত্রেই উচ্চতার সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে ওজন হতে হবে।

পরীক্ষার ফি: ২৫০ টাকা। মেটিওরোলজি এন্ট্রি ও এনসিসি স্পেশ্যাল এন্ট্রির ক্ষেত্রে পরীক্ষার ফি দিতে হবে না।

আবেদনের পদ্ধতি: https://careerindianairforce.cdac.in অথবা  https://afcat.cdac.in  লিঙ্কে গিয়ে অনলাইন আবেদন করা যাবে। বৈধ ইমেল আইডি ও ফোন নম্বর থাকতে হবে। অনলাইন আবেদন করা যাবে ৩০ জুন ২০১৯ তারিখ পর্যন্ত। ২৫ বছরের নিচের প্রার্থীদের অবশ্যই অবিবাহিত হতে হবে। ট্রেনিং চলাকালীন বিয়ে করা চলবে না। ২৫ বছরের উপরে বিবাহিত প্রার্থীরা আবেদনের যোগ্য, কিন্তু ট্রেনিং চলাকালীন সপরিবারে থাকার কোনো সুযোগ নেই। যোগ্যতা ও অন্যান্য প্রাসঙ্গিক তথ্য জানা যাবে উপরোক্ত ওয়েবসাইটে।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *