fbpx

গ্রামীণ ব্যাঙ্কগুলিতে আট হাজারের বেশি অফিসার ও অফিস অ্যাসিস্ট্যান্ট

পশ্চিমবঙ্গ সহ সারা দেশের মোট ৪৫টি আঞ্চলিক গ্রামীণ ব্যাঙ্কে অফিসার স্কেল ওয়ান, টু, থ্রি এবং অফিস অ্যাসিস্ট্যান্ট (মাল্টিপারপাস) পদে আট হাজারের বেশি শূন্যপদে কর্মী নিয়োগ করা হবে আইবিপিএসের পরীক্ষা (CRP RRBs VIII)-র মাধ্যমে। নিচের যোগ্যতার যে-কোনো ভারতীয় পুরুষ ও মহিলারা আবেদন করতে পারবেন। পশ্চিমবঙ্গে এই ধরনের তিনটি ব্যাঙ্ক হল— বঙ্গীয় গ্রামীণ বিকাশ ব্যাঙ্ক মুর্শিদাবাদ, পশ্চিমবঙ্গ গ্রামীণ ব্যাঙ্ক হাওড়া এবং উত্তরবঙ্গ ক্ষেত্রীয় গ্রামীণ ব্যাঙ্ক কোচবিহার। অফিসার ও অফিস অ্যাসিস্ট্যান্ট (মাল্টিপারপাস) দুটি পদের জন্যই আবেদন করতে পারবেন, সেক্ষেত্রে আলাদা-আলাদা করে আবেদনের ফি দিতে হবে, তবে অফিসার স্কেল ওয়ান, টু ও থ্রি-র মধ্যে যে-কোনো একটি পদের জন্য আবেদন করা যাবে।

পশ্চিমবঙ্গের তিনটি গ্রামীণ ব্যাঙ্কের শূন্যপদের বিন্যাস: অফিস অ্যাসিস্ট্যান্ট (মাল্টিপারপাস): পশ্চিমবঙ্গ গ্রামীণ ব্যাঙ্ক: ৫২ (অসংরক্ষিত ১২, তপশিলি জাতি ১৮, তপশিলি উপজাতি ৮, ওবিসি ১৩, ইডব্লুএস অর্থাৎ আর্থিক দিক থেকে দুর্বলতর শ্রেণি ১)। এইসবের মধ্যে ১টি দৃষ্টি প্রতিবন্ধী, ১টি শ্রবণ প্রতিবন্ধী ও ১টি অস্থি প্রতিবন্ধীদের জন্য সংরক্ষিত। উত্তরবঙ্গ ক্ষেত্রীয় গ্রামীণ ব্যাঙ্ক: শূন্যপদের হিসেব এখনও জানা যায়নি। বঙ্গীয় গ্রামীণ বিকাশ ব্যাঙ্ক: ৭০ (অসংরক্ষিত ২৮, তপশিলি জাতি ১১, তপশিলি উপজাতি ৫, ওবিসি ১৯, ইডব্লুএস ৭)। এইসবের মধ্যে ১টি শ্রবণ প্রতিবন্ধী, ১টি অস্থি প্রতিবন্ধী ও ১টি আইডিদের জন্য সংরক্ষিত।

অফিসার স্কেল ওয়ান: পশ্চিমবঙ্গ গ্রামীণ ব্যাঙ্ক: ৫০ (অসংরক্ষিত ২৫, তপশিলি জাতি ৮, তপশিলি উপজাতি ৪, ওবিসি ১২, ইডব্লুএস ১)। এইসবের মধ্যে ১টি দৃষ্টি প্রতিবন্ধী, ১টি শ্রবণ প্রতিবন্ধী ও ১টি অস্থি প্রতিবন্ধীদের জন্য সংরক্ষিত। উত্তরবঙ্গ ক্ষেত্রীয় গ্রামীণ ব্যাঙ্ক: শূন্যপদের হিসেব এখনও জানা যায়নি। বঙ্গীয় গ্রামীণ বিকাশ ব্যাঙ্ক: ২০০ (অসংরক্ষিত ৮১, তপশিলি জাতি ৩০, তপশিলি উপজাতি ১৫, ওবিসি ৫৪, ইডব্লুএস ২০)।

অফিসার স্কেল টু (এগ্রিকালচার অফিসার): বঙ্গীয় গ্রামীণ বিকাশ ব্যাঙ্ক: শূন্যপদের হিসেব এখনও জানা যায়নি। পশ্চিমবঙ্গ গ্রামীণ ব্যাঙ্ক: ৯ (অসংরক্ষিত ১, তপশিলি জাতি ১, তপশিলি উপজাতি ৩, ওবিসি ৩, ইডব্লুএস ১)। উত্তরবঙ্গ ক্ষেত্রীয় গ্রামীণ ব্যাঙ্ক: শূন্যপদের হিসেব এখনও জানা যায়নি।

অফিসার স্কেল টু (মার্কেটিং অফিসার): বঙ্গীয় গ্রামীণ বিকাশ ব্যাঙ্ক: শূন্যপদের হিসেব এখনও জানা যায়নি। পশ্চিমবঙ্গ গ্রামীণ ব্যাঙ্ক: শূন্যপদের হিসেব এখনও জানা যায়নি। উত্তরবঙ্গ ক্ষেত্রীয় গ্রামীণ ব্যাঙ্ক: শূন্যপদের হিসেব এখনও জানা যায়নি।

অফিসার স্কেল টু (ট্রেজারি ম্যানেজার): বঙ্গীয় গ্রামীণ বিকাশ ব্যাঙ্ক: শূন্যপদের হিসেব এখনও জানা যায়নি। পশ্চিমবঙ্গ গ্রামীণ ব্যাঙ্ক: ১ (অসংরক্ষিত)। উত্তরবঙ্গ ক্ষেত্রীয় গ্রামীণ ব্যাঙ্ক: শূন্যপদের হিসেব এখনও জানা যায়নি।

অফিসার স্কেল টু (ল): বঙ্গীয় গ্রামীণ বিকাশ ব্যাঙ্ক: শূন্যপদের হিসেব এখনও জানা যায়নি। পশ্চিমবঙ্গ গ্রামীণ ব্যাঙ্ক: ৪ (অসংরক্ষিত ১, তপশিলি জাতি ১, তপশিলি উপজাতি ১, ওবিসি ১)। উত্তরবঙ্গ ক্ষেত্রীয় গ্রামীণ ব্যাঙ্ক: শূন্যপদের হিসেব এখনও জানা যায়নি।

অফিসার স্কেল টু (সিএ): বঙ্গীয় গ্রামীণ বিকাশ ব্যাঙ্ক: শূন্যপদের হিসেব এখনও জানা যায়নি। পশ্চিমবঙ্গ গ্রামীণ ব্যাঙ্ক: ৪ (অসংরক্ষিত ১, ওবিসি ২, ইডব্লুএস ১)। উত্তরবঙ্গ ক্ষেত্রীয় গ্রামীণ ব্যাঙ্ক: শূন্যপদের হিসেব এখনও জানা যায়নি।

অফিসার স্কেল টু (আইটি): বঙ্গীয় গ্রামীণ বিকাশ ব্যাঙ্ক: শূন্যপদের হিসেব এখনও জানা যায়নি। পশ্চিমবঙ্গ গ্রামীণ ব্যাঙ্ক: ২ (অসংরক্ষিত ১, তপশিলি জাতি ১)। উত্তরবঙ্গ ক্ষেত্রীয় গ্রামীণ ব্যাঙ্ক: শূন্যপদের হিসেব এখনও জানা যায়নি।

অফিসার স্কেল টু (জেনারেল ব্যাঙ্কিং অফিসার): বঙ্গীয় গ্রামীণ বিকাশ ব্যাঙ্ক: শূন্যপদের হিসেব এখনও জানা যায়নি। পশ্চিমবঙ্গ গ্রামীণ ব্যাঙ্ক: শূন্যপদের হিসেব এখনও জানা যায়নি। উত্তরবঙ্গ ক্ষেত্রীয় গ্রামীণ ব্যাঙ্ক: শূন্যপদের হিসেব এখনও জানা যায়নি।

অফিসার স্কেল থ্রি: বঙ্গীয় গ্রামীণ বিকাশ ব্যাঙ্ক: শূন্যপদের হিসেব এখনও জানা যায়নি। পশ্চিমবঙ্গ গ্রামীণ ব্যাঙ্ক: শূন্যপদের হিসেব এখনও জানা যায়নি। উত্তরবঙ্গ ক্ষেত্রীয় গ্রামীণ ব্যাঙ্ক: শূন্যপদের হিসেব এখনও জানা যায়নি।

বয়সসীমা: অফিসার স্কেল থ্রি (সিনিয়র ম্যানেজার) পদের ক্ষেত্রে বয়স হতে হবে ২১-৪০ বছরের মধ্যে (জন্মতারিখ ৩ জুন ১৯৭৯ থেকে ৩১ মে ১৯৯৮)। অফিসার স্কেল টু (ম্যানেজার) পদের ক্ষেত্রে ২১-৩২ বছরের মধ্যে (জন্মতারিখ ৩ জুন ১৯৮৭-৩১ মে ১৯৯৮)। অফিসার স্কেল ওয়ান (অ্যাসিস্ট্যান্ট ম্যানেজার) পদের ক্ষেত্রে ১৮-৩০ বছরের মধ্যে (জন্মতারিখ ৩ জুন ১৯৮৯ থেকে ৩১ মে ২০০১)। অফিস অ্যাসিস্ট্যান্ট (মাল্টিপালপাস) পদের ক্ষেত্রে ১৮-২৮ বছরের মধ্যে (জন্মতারিখ ২ জুন ১৯৯১ থেকে ১ জুন ২০০১)। সবক্ষেত্রেই সংরক্ষিত শ্রেণির প্রার্থীরা নিয়ম অনুযায়ী বয়সের ঊর্ধ্বসীমায় ছাড় পাবেন।

শিক্ষাগত যোগ্যতা ও অভিজ্ঞতা: অফিস অ্যাসিস্ট্যান্ট (মাল্টিপারপাস): কোনো স্বীকৃত বিশ্ববিদ্যালয় থেকে যে-কোনো শাখায় ডিগ্রি বা সমতুল। যে-এলাকার গ্রামীণ ব্যাঙ্কের জন্য আবেদন করবেন সেখানকার স্থানীয় ভাষার জ্ঞান থাকতে হবে। কম্পিউটারের জ্ঞান থাকা বাঞ্ছনীয়।

অফিসার স্কেল ওয়ান: কোনো স্বীকৃত বিশ্ববিদ্যালয় থেকে যে-কোনো শাখায় ডিগ্রি বা সমতুল। প্রসঙ্গত, এগ্রিকালচার, হর্টিকালচার, ফরেস্ট্রি, অ্যানিমাল হাজব্যান্ড্রি, ভেটেরিনারি সায়েন্স, এগ্রিকালচারাল ইঞ্জিনিয়ারিং, পিসিকালচার, এগ্রিকালচারাল মার্কেটিং অ্যান্ড কো-অপারেশন, ইনফরমেশন টেকনোলজি, ম্যানেজমেন্ট, ল, ইকোনমিক্স, অ্যাকাউন্ট্যান্সি— এর কোনোটিতে ডিগ্রি থাকলে অগ্রাধিকার পাবেন। যে-এলাকার গ্রামীণ ব্যাঙ্কের জন্য আবেদন করবেন সেখানকার স্থানীয় ভাষার জ্ঞান থাকা বাঞ্ছনীয়। কম্পিউটারের বিষয়ে জ্ঞান থাকলে তা বাড়তি যোগ্যতা হিসেবে গণ্য হবে।

অফিসার স্কেল টু (জেনারেল ব্যাঙ্কিং অফিসার): কোনো স্বীকৃত বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ৫০ শতাংশ নম্বর নিয়ে যে-কোনো শাখায় ডিগ্রি। ব্যাঙ্কিং, ফিনান্স, মার্কেটিং, এগ্রিকালচার, হর্টিকালচার, ফরেস্ট্রি, অ্যানিমাল হাজব্যান্ড্রি, ভেটেরিনারি সায়েন্স, এগ্রিকালচারাল ইঞ্জিনিয়ারিং, পিসিকালচার, এগ্রিকালচারাল মার্কেটিং অ্যান্ড কো-অপারেশন, ইনফরমেশন টেকনোলজি, ম্যানেজমেন্ট, ল, ইকোনমিক্স, অ্যাকাউন্ট্যান্সিতে ডিগ্রি থাকলে অগ্রাধিকার পাবেন। কোনো ব্যাঙ্ক বা ফিনান্সিয়াল ইনস্টিটিউটে অফিসার হিসেবে দু বছরের কাজের অভিজ্ঞতা থাকতে হবে।

অফিসার স্কেল টু (স্পেশ্যালিস্ট অফিসার): ইনফরমেশন টেকনোলজি অফিসার: কোনো স্বীকৃত বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ৫০ শতাংশ নিয়ে ইলেক্ট্রনিক্স/ কমিউনিকেশন/ কম্পিউটার সায়েন্স/ ইনফরমেশন টেকনোলজিতে ডিগ্রি বা সমতুল পাশ। এএসপি, পিএইচপি, সিপ্লাসপ্লাস, জাভা, ভিবি, ভিসি, ওসিপি ইত্যাদির সার্টিফিকেট থাকা বাঞ্ছনীয়। এক বছরের কাজের অভিজ্ঞতা থাকতে হবে। চার্টার্ড অ্যাকাউন্ট্যান্ট: ইনস্টিটিউট অব চার্টার্ড অ্যাকাউন্ট্যান্টস অব ইন্ডিয়া থেকে সার্টিফায়েড অ্যাসোশিয়েট (সিএ)। এক বছরের কাজের অভিজ্ঞতা থাকতে হবে। ল অফিসার: ৫০ শতাংশ নম্বর নিয়ে ল ডিগ্রি বা সমতুল পাশ। কোনো ব্যাঙ্ক বা ফিনান্সিয়াল ইনস্টিটিউটে অ্যাডভোকেট বা ল অফিসার হিসেবে ন্যূনতম দু বছরের অভিজ্ঞতা থাকতে হবে। ট্রেজারি ম্যানেজার: ইনস্টিটিউট অব চার্টার্ড অ্যাকাউন্ট্যান্টস অব ইন্ডিয়া থেকে সার্টিফায়েড অ্যাসোশিয়েট অথবা কোনো স্বীকৃত বিশ্ববিদ্যালয় বা ইনস্টিটিউট থেকে ফিনান্সে এমবিএ। এক বছরের কাজের অভিজ্ঞতা থাকতে হবে। মার্কেটিং অফিসার: কোনো স্বীকৃত বিশ্ববিদ্যালয় থেকে মার্কেটিংয়ে এমবিএ। এক বছরের কাজের অভিজ্ঞতা থাকতে হবে। এগ্রিকালচারাল অফিসার: কোনো স্বীকৃত বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ন্যূনতম ৫০ শতাংশ নম্বর নিয়ে এগ্রিকালচার, হর্টিকালচার, ডেয়ারি, অ্যানিমাল হাজব্যান্ড্রি, ফরেস্ট্রি, ভেটেরিনারি সায়েন্স, এগ্রিকালচারাল ইঞ্জিনিয়ারিং, পিসিকালচারে ডিগ্রি বা সমতুল। দু বছরের কাজের অভিজ্ঞতা থাকতে হবে।

অফিসার স্কেল থ্রি: কোনো স্বীকৃত বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ন্যূনতম ৫০ শতাংশ নম্বর নিয়ে যে-কোনো শাখায় ডিগ্রি। ব্যাঙ্কিং, ফিনান্স, মার্কেটিং, এগ্রিকালচার, হর্টিকালচার, ফরেস্ট্রি, অ্যানিমাল হাজব্যান্ড্রি, ভেটেরিনারি সায়েন্স, এগ্রিকালচারাল ইঞ্জিনিয়ারিং, পিসিকালচার, এগ্রিকালচারাল মার্কেটিং অ্যান্ড কো-অপারেশন, ইনফরমেশন টেকনোলজি, ম্যানেজমেন্ট, ল, ইকোনমিক্স, অ্যাকাউন্ট্যান্সিতে ডিগ্রি বা ডিপ্লোমা থাকলে অগ্রাধিকার পাবেন। কোনো ব্যাঙ্ক বা ফিনান্সিয়াল ইনস্টিটিউশনে অফিসার হিসেবে ন্যূনতম ৫ বছরের অভিজ্ঞতা থাকতে হবে। সবকটি পদের ক্ষেত্রেই সমস্ত শিক্ষাগত যোগ্যতা কোনো স্বীকৃত বিশ্ববিদ্যালয় বা বোর্ড থেকে অর্জন করতে হবে। সবক্ষেত্রেই শিক্ষাগত যোগ্যতা ও অভিজ্ঞতা সম্পূর্ণ হতে হবে ৪ জুলাই ২০১৯ তারিখের মধ্যে।

প্রার্থী বাছাই পদ্ধতি: আইবিপিএস কমন রিটেন এগজামিনেশন ও ইন্টারভিউয়ের মাধ্যমে প্রার্থী বাছাই করা হবে। অফিস অ্যাসিস্ট্যান্ট (মাল্টিপারপাস) পদের ক্ষেত্রে ইন্টারভিউ হবে না, শুধুমাত্র লেখা পরীক্ষার মাধ্যমে প্রার্থী বাছাই করা হবে। অফিস অ্যাসিস্ট্যান্ট (মাল্টিপারপাস) পদের ক্ষেত্রে অবজেক্টিভ প্রিলিমিনারি পরীক্ষায় থাকবে রিজনিং (৪০টি প্রশ্ন, ৪০ নম্বর), নিউমেরিক্যাল এবিলিটি (৪০টি প্রশ্ন, ৪০ নম্বর)। মোট ৮০ নম্বর, সময় ৪৫ মিনিট। প্রিলিমিনারি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হলে মেইন পরীক্ষা দিতে পারবেন। অফিস অ্যাসিস্ট্যান্ট (মাল্টিপারপাস) পদের অবজেক্টিভ মেইন পরীক্ষায় থাকবে রিজনিং (৪০টি প্রশ্ন, ৫০ নম্বর), নিউমেরিক্যাল এবিলিটি (৪০টি প্রশ্ন, ৫০ নম্বর), জেনারেল অ্যাওয়্যারনেস (৪০টি প্রশ্ন, ৪০ নম্বর), ইংলিশ ল্যাঙ্গুয়েজ (৪০টি প্রশ্ন, ৪০ নম্বর), হিন্দি ল্যাঙ্গুয়েজ (৪০টি প্রশ্ন, ৪০ নম্বর)। কম্পিউটার নলেজ (৪০টি প্রশ্ন, ২০ নম্বর)। মোট ২০০ নম্বরের পরীক্ষা, সময় ২ ঘণ্টা। অফিসার স্কেল ওয়ান পদের ক্ষেত্রে অবজেক্টিভ প্রিলিমিনারি পরীক্ষা, অবজেক্টিভ মেইন পরীক্ষা ও ইন্টারভিউয়ের মাধ্যমে প্রার্থী বাছাই করা হবে। অফিসার স্কেল ওয়ান অবজেক্টিভ প্রিলিমিনারি পরীক্ষায় থাকবে রিজনিং (৪০টি প্রশ্ন, ৪০ নম্বর), কোয়ান্টিটেটিভ অ্যাপ্টিটিউড (৪০টি প্রশ্ন, ৪০ নম্বর)। মোট ৮০ নম্বরের পরীক্ষা, সময় ৪৫ মিনিট। প্রিলিমিনারি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হলে মেইন পরীক্ষা দিতে পারবেন। অফিসার স্কেল ওয়ান পদের অবজেক্টিভ মেইন পরীক্ষায় থাকবে রিজনিং (৪০টি প্রশ্ন, ৫০ নম্বর), কোয়ান্টিটেটিভ অ্যাপ্টিটিউড (৪০টি প্রশ্ন, ৫০ নম্বর), জেনারেল অ্যাওয়্যারনেস (৪০টি প্রশ্ন, ৪০ নম্বর), ইংলিশ ল্যাঙ্গুয়েজ (৪০টি প্রশ্ন, ৪০ নম্বর), হিন্দি ল্যাঙ্গুয়েজ (৪০টি প্রশ্ন, ৪০ নম্বর), কম্পিউটার নলেজ (৪০টি প্রশ্ন, ২০ নম্বর)।

মেইন পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হলে ইন্টারভিউয়ের জন্য ডাক পাবেন। অফিসার স্কেল টু (জেনারেল ব্যাঙ্কিং অফিসার ও স্পেশ্যালিস্ট ক্যাডার) এবং অফিসার স্কেল থ্রি পদের ক্ষেত্রে অবজেক্টিভ সিঙ্গল লেভেল এগজামিনেশন ও ইন্টারভিউয়ের মাধ্যমে প্রার্থী বাছাই করা হবে। অফিসার স্কেল টু (জেনারেল ব্যাঙ্কিং অফিসার) পদের ক্ষেত্রে অবজেক্টিভ সিঙ্গল লেভেল এগজামিনেশনে থাকবে রিজনিং (৪০টি প্রশ্ন, ৫০ নম্বর), কোয়ান্টিটেটিভ অ্যাপ্টিটিউড অ্যান্ড ডেটা ইন্টারপ্রিটেশন (৪০টি প্রশ্ন, ৫০ নম্বর), ফিনান্সিয়াল অ্যাওয়্যারনেস (৪০টি প্রশ্ন, ৪০ নম্বর), ইংলিশ ল্যাঙ্গুয়েজ (৪০টি প্রশ্ন, ৪০ নম্বর), হিন্দি ল্যাঙ্গুয়েজ (৪০টি প্রশ্ন, ৪০ নম্বর)। কম্পিউটার নলেজ (৪০টি প্রশ্ন, ২০ নম্বর)। মোট ২০০ নম্বর, সময় ২ ঘণ্টা। অফিসার স্কেল টু (স্পেশ্যালিস্ট ক্যাডার) পদের ক্ষেত্রে পরীক্ষায় থাকবে রিজনিং (৪০টি প্রশ্ন, ৪০ নম্বর), কোয়ান্টিটেটিভ অ্যাপ্টিটিউড অ্যান্ড ডেটা ইন্টারপ্রিটেশন (৪০টি প্রশ্ন, ৪০টি নম্বর), ফিনান্সিয়াল অ্যাওয়্যারনেস (৪০টি প্রশ্ন, ৪০ নম্বর)। ইংলিশ ল্যাঙ্গুয়েজ (৪০টি প্রশ্ন, ২০ নম্বর), হিন্দি ল্যাঙ্গুয়েজ (৪০টি প্রশ্ন, ২০ নম্বর), কম্পিউটার নলেজ (৪০টি প্রশ্ন, ২০ নম্বর), প্রফেশনাল নলেজ (৪০টি প্রশ্ন, ৪০ নম্বর)। অফিসার স্কেল থ্রি পদের ক্ষেত্রে থাকবে রিজনিং (৪০টি প্রশ্ন, ৫০ নম্বর), কোয়ান্টিটেটিভ অ্যাপ্টিটিউড অ্যান্ড ডেটা ইন্টারপ্রিটেশন (৪০টি প্রশ্ন, ৫০ নম্বর), ফিনান্সিয়াল অ্যাওয়্যারনেস (৪০টি প্রশ্ন, ৪০ নম্বর), ইংলিশ ল্যাঙ্গুয়েজ (৪০টি প্রশ্ন, ৪০ নম্বর), হিন্দি ল্যাঙ্গুয়েজ (৪০টি প্রশ্ন, ৪০ নম্বর), কম্পিউটার নলেজ (৪০টি প্রশ্ন, ২০ নম্বর)। অফিসার স্কেল টু ও থ্রি পদের ক্ষেত্রে অবজেক্টিভ সিঙ্গল লেভেল এগজামিনেশনে উত্তীর্ণ হলে ইন্টারভিউয়ের জন্য ডাক পাবেন। সবক্ষেত্রেই ইংরেজি ও হিন্দি বাদে বাকি বিষয়গুলির প্রশ্ন হবে হিন্দি/ ইংরেজিতে। নেগেটিভ মার্কিং থাকবে। একটি ভুল উত্তরের জন্য ০.২৫ নম্বর করে কাটা হবে।

অফিস অ্যাসিস্ট্যান্ট (মাল্টিপারপাস) এর ক্ষেত্রে তপশিলি জাতি/ উপজাতি, সংঘ্যালঘু সম্প্রদায়, প্রাক্তন সেনাকর্মী প্রার্থীদের ও অফিসার স্কেল ওয়ানের ক্ষেত্রে তপশিলি জাতি/ উপজাতি ও সংখ্যালঘু সম্প্রদায় প্রার্থীদের প্রি-এগজামিনেশন ট্রেনিংয়ের ব্যবস্থা রয়েছে। প্রি- ট্রেনিং সম্পর্কে বিস্তারিত ওয়েবসাইট থেকে জানা যাবে। ইন্টারভিউয়ের সময় বৈধ ইন্টারভিউয়ের কললেটারের প্রিন্ট-আউট, অ্যাপ্লিকেশন ফর্মের প্রিন্ট-আউট, জন্মতারিখের প্রমাণপত্র, সচিত্র পরিচয়পত্র, সমস্ত শিক্ষাগত যোগ্যতা ও অভিজ্ঞতার সার্টিফিকেট ও অন্যান্য জরুরি নথিপত্রের স্ব-প্রত্যয়িত ফোটোকপি সহ মূল কপি সঙ্গে নিয়ে যেতে হবে। পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের জন্য পরীক্ষাকেন্দ্রগুলি হল আসানসোল, বর্ধমান, বহরমপুর, দুর্গাপুর, হুগলি, হাওড়া, কল্যাণী, বৃহত্তর কলকাতা, শিলিগুড়ি। অন্যান্য রাজ্যের পরীক্ষাকেন্দ্রগুলি সম্পর্কে ওয়েবসাইট থেকে জানা যাবে। অনলাইন আবেদন করার সময় পরীক্ষাকেন্দ্র বাছাই করতে হবে।

আবেদন ফি: অফিসার স্কেল ওয়ান, টু ও থ্রি পদের ক্ষেত্রে আবেদনের ফি ও ইন্টিমেশন চার্জ ৬০০ টাকা। তপশিলি জাতি/ উপজাতি ও শারীরিক প্রতিবন্ধী প্রার্থীদের দিতে হবে ১০০ টাকা। অফিস অ্যাসিস্ট্যান্ট (মাল্টিপারপাস)পদের ক্ষেত্রে আবেদনের ফি/ ইন্টিমেশন চার্জ ৬০০ টাকা। তপশিলি জাতি/ উপজাতি, শারীরিক প্রতিবন্ধী ও প্রাক্তন সেনাকর্মীদের দিতে হবে ১০০ টাকা। ডেবিট কার্ড (ভিসা/ মাস্টার কার্ড/ ম্যাস্ট্রো) ক্রেডিট কার্ড, ইন্টারনেট ব্যাঙ্কিং, আইএমপিএস, ক্যাশ কার্ড/ মোবাইল ওয়ালেটের মাধ্যমে ফি দেওয়া যাবে। ট্র্যানজ্যাকশন হয়ে গেলে একটি ই-রিসিট পাওয়া যাবে। ই-রিসিটের প্রিন্ট-আউট নিয়ে রাখতে হবে।

আবেদনের পদ্ধতি: www.ibps.in ওয়েবসাইটে গিয়ে অনলাইন আবেদন করতে হবে। বৈধ ইমেল আইডি ও মোবাইল নম্বর থাকতে হবে। ছবি, স্বাক্ষর, বাঁ হাতের বুড়ো আঙুলের ছাপ ও হাতে লেখা ডিক্ল্যারেশন স্ক্যান করে রাখতে হবে, অনলাইন আবেদনের সময় নির্দিষ্ট স্থানে আপলোড করতে হবে। অনলাইন আবেদন করা যাবে ১৮ জুন থেকে ৪ জুলাই ২০১৯ পর্যন্ত। আবেদন সংক্রান্ত কোনো জিজ্ঞাসা থাকলে লগইন করুন http://cgrs.ibps.in-এ। অন্যান্য প্রাসঙ্গিক তথ্য জানা যাবে উপরোক্ত ওয়েবসাইটে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *