fbpx

পরমাণু বিদ্যুতে ৬৭ স্টাইপেন্ডিয়ারি ট্রেনি


নিউক্লিয়ার পাওয়ার কর্পোরেশন অব ইন্ডিয়া লিমিটেডে ৬৭ জন স্টাইপেন্ডিয়ারি ট্রেনি নিয়োগ করা হবে। বিজ্ঞপ্তি নম্বর: 02/MAPS/HRM/2019. নিচের যোগ্যতার যে-কোনো ভারতীয়রা আবেদন করতে পারবেন।

স্টাইপেন্ডিয়ারি ট্রেনি/ টেকনিশিয়ান বি-র শূন্যপদ: প্ল্যান্ট অপারেটর: ১১, ইলেক্ট্রিশিয়ান: ৭, ইলেক্ট্রনিক্স মেকানিক/ ইনস্ট্রুমেন্ট মেকানিক: ৯, ফিটার: ৮, মেশিনিস্ট: ১, ওয়েল্ডার: ১, ড্রাফটসম্যান: ১, প্লাম্বার: ২, কার্পেন্টার: ২।

স্টাইপেন্ডিয়ারি ট্রেনি/ সায়েন্টিফিক অ্যাসিস্ট্যান্ট বি: মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং: ৮, ইলেক্ট্রিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং: ৬, ইলেক্ট্রনিক্স ইঞ্জিনিয়ারিং/ ইনস্ট্রুমেন্টেশন ইঞ্জিনিয়ারিং: ৪, সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং: ৩, ফিজিক্স: ৩, কেমিস্ট্রি: ১।

যোগ্যতা: স্টাইপেন্ডিয়ারি ট্রেনি/ টেকনিশিয়ান ‘বি’: প্ল্যান্ট অপারেটর: ১) এইচএসসি (১০+২) বা আইএসসি (বিজ্ঞান বিষয় সহ)। সায়েন্স ও ম্যাথমেটিক্সে আলাদা করে ন্যূনতম ৫০ শতাংশ নম্বর পেয়ে থাকতে হবে। ২) অন্তত এসএসসি স্তর পর্যন্ত ইংরেজি একটি বিষয় হিসেবে থাকতে হবে।

ইলেক্ট্রিশিয়ান, ইলেক্ট্রনিক্স মেকানিক/ ইনস্ট্রুমেন্ট মেকানিক, ফিটার, মেশিনিস্ট, ওয়েল্ডার, ড্রাফটসম্যান, প্লাম্বার, কার্পেন্টার: ১) এসএসসি (সায়েন্স ও ম্যাথমেটিক্সে আলাদা-আলাদা করে ন্যূনতম ৫০ শতাংশ নম্বর পেয়ে থাকতে হবে) এবং ইলেক্ট্রিশিয়ান/ ইলেক্ট্রনিক মেকানিক/ ইনস্ট্রুমেন্ট মেকানিক/ ফিটার/ মেশিনিস্ট/ ওয়েল্ডার/ ড্রাফটসম্যান/ প্লাম্বার/ কার্পেন্টার ট্রেডে দু বছরের আইটিআই সার্টিফিকেট কোর্স। ২) সংশ্লিষ্ট ফিল্ডে অন্তত এক বছরের অভিজ্ঞতা। ৩) অন্তত এসএসসি স্তর পর্যন্ত ইংরেজি একটি বিষয় হিসেবে থাকতে হবে।

স্টাইপেন্ডিয়ারি ট্রেনি/ সায়েন্টিফিক অ্যাসিস্ট্যান্ট বি: মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং: মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে ন্যূনতম ৬০ শতাংশ নম্বর নিয়ে ডিপ্লোমা। ইলেক্ট্রিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং: ইলেক্ট্রিক্যাল, ইলেক্ট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেক্ট্রনিক্স ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে ন্যূনতম ৬০ শতাংশ নম্বর নিয়ে ডিপ্লোমা। ইলেক্ট্রনিক্স ইঞ্জিনিয়ারিং/ ইনস্ট্রুমেন্টেশন ইঞ্জিনিয়ারিং: ইলেক্ট্রনিক্স, ইলেক্ট্রনিক্স অ্যান্ড কমিউনিকেশন ইঞ্জিনিয়ারিং, ইলেক্ট্রনিক্স অ্যান্ড ইনস্ট্রুমেন্টেশন ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে ন্যূনতম ৬০ শতাংশ নম্বর সহ ডিপ্লোমা অথবা ইনস্ট্রুমেন্টেশন, ইলেক্ট্রনিক্স অ্যান্ড ইনস্ট্রুমেন্টেশন ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড কন্ট্রোল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে ন্যূনতম ৬০ শতাংশ নম্বর নিয়ে ডিপ্লোমা। সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং: সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে ন্যূনতম ৬০ শতাংশ নম্বর নিয়ে ডিপ্লোমা। ফিজিক্স: ন্যূনতম ৬০ শতাংশ নম্বর নিয়ে বিএসসি। ফিজিক্স প্রধান বিষয় এবং কেমিস্ট্রি/ ম্যাথমেটিক্স/ স্ট্যাটিস্টিক্স/ ইকোনমিক্স ও কম্পিউটার সায়েন্স ঐচ্ছিক বিষয় হিসেবে থাকতে হবে। বিএসসিতে ম্যাথমেটিক্স প্রধান বিষয় হিসেবে থাকলে আবেদন করতে পারবেন না। এইচএসসি (১০+২) স্তরে ম্যাথমেটিক্স থাকতেই হবে এবং এসএসসি/ এসএসএলসি বা এইচএসসি স্তরে ইংরেজি একটি বিষয় হিসেবে থাকতে হবে। কেমিস্ট্রি: ন্যূনতম ৬০ শতাংশ নম্বর নিয়ে বিএসসি। কেমিস্ট্রি প্রধান বিষয় ও ফিজিক্স/ ম্যাথমেটিক্স/ স্ট্যাটিস্টিক্স/ ইলেক্ট্রনিক্স ও কম্পিউটার সায়েন্স ঐচ্ছিক বিষয় হিসেবে থাকতে হবে।

বয়সসীমা: স্টাইপেন্ডিয়ারি ট্রেনি/ টেকনিশিয়ান ‘বি’ পদে বয়স হতে হবে ১৮-২৪ বছরের মধ্যে। স্টাইপেন্ডিয়ারি ট্রেনি/ সায়েন্টিফিক অ্যাসিস্ট্যান্ট ‘বি’ পদে ১৮-২৫ বছরের মধ্যে। সবক্ষেত্রেই ১১ জুলাই ২০১৯ তারিখের মধ্যে বয়স সম্পূর্ণ হতে হবে এবং সংরক্ষিত শ্রেণির প্রার্থীরা নিয়ম অনুযায়ী বয়সের ঊর্ধ্বসীমায় ছাড় পাবেন।

প্রার্থী বাছাই পদ্ধতি: স্টাইপেন্ডিয়ারি ট্রেনি/ টেকনিশিয়ান ‘বি’ পদে লেখা পরীক্ষা এবং ট্রেড/ স্কিল টেস্টের মাধ্যমে প্রার্থী বাছাই করা হবে। লেখা পরীক্ষা হবে দুটি ধাপে– প্রিলিমিনারি টেস্ট ও অ্যাডভান্স টেস্ট। প্রিলিমিনারি পরীক্ষায় ম্যাথমেটিক্স, সায়েন্স ও জেনারেল অ্যাওয়্যারনেসের ওপর ৫০টি মাল্টিপল চয়েস প্রশ্ন থাকবে, সময় ১ ঘণ্টা। নেগেটিভ মার্কিং থাকবে, এক-একটি ভুল উত্তরের জন্য ১ নম্বর করে কাটা হবে। কোয়ালিফাইং মার্কস ৪০। তপশিলি জাতি/ উপজাতি ও ওবিসি প্রার্থীদের ক্ষেত্রে ৩০ শতাংশ। প্রিলিমিনারি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হলে অ্যাডভান্স টেস্ট দিতে পারবেন। সবশেষে ট্রেড/ স্কিল টেস্ট।

স্টাইপেন্ডিয়ারি ট্রেনি/ সায়েন্টিফিক অ্যাসিস্ট্যান্ট ‘বি’ পদে লেখা পরীক্ষা ও ইন্টারভিউয়ের মাধ্যমে প্রার্থী বাছাই করা হবে। লেখা পরীক্ষায় পার্ট ওয়ানে ইংলিশ, জেনারেল নলেজ ও কোয়ান্টিটেটিভ অ্যাপ্টিটিউডের ওপর ১০০টি প্রশ্ন থাকবে। পার্ট টুতে সংশ্লিষ্ট ডিসিপ্লিনের ওপর ১০০টি প্রশ্ন থাকবে। পরীক্ষার সময় ৩ ঘণ্টা। নেগেটিভ মার্কিং থাকবে। কোয়ালিফাইং মার্কস ৪০। তপশিলি জাতি/ উপজাতি ও ওবিসি প্রার্থীদের ক্ষেত্রে ৩০ শতাংশ।

আবেদনের পদ্ধতি: www.npcil.nic.in অথবা www.npcilcareers.co.in ওয়েবসাইটে গিয়ে অনলাইন আবেদন করতে হবে। বৈধ ইমেল আইডি ও মোবাইল নম্বর থাকতে হবে। অনলাইন আবেদন করা যাবে ১১ জুলাই ২০১৯ বিকাল ৫টা পর্যন্ত। অনলাইন আবেদন করার আগে ছবি ও স্বাক্ষর স্ক্যান করতে হবে। ছবি হতে হবে ৫০ কেবির মধ্যে (১২৫×১৬৫ পিক্সেল) এবং স্বাক্ষরের মাপ ২০ কেবির মধ্যে (১২৫×৮০ পিক্সেল)। ছবি ও স্বাক্ষর জেপিজি ফরম্যাটে স্ক্যান করতে হবে এবং অনলাইন আবেদন করার সময় নির্দিষ্ট স্থানে আপলোড করতে হবে। অন্যান্য প্রাসঙ্গিক তথ্য জানা যাবে উপরোক্ত ওয়েবসাইটে।

 

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *