fbpx

ইউপিএসসির সিভিল সার্ভিসে ৭৯৬, ফরেস্ট সার্ভিসে ৯০


ইন্ডিয়ান সিভিল সার্ভিস এগজামিনেশন, ২০২০ এবং ইন্ডিয়ান ফরেস্ট সার্ভিস এগজামিনেশন ২০২০-র জন্য দরখাস্ত নেওয়া শুরু হল। আবেদন করতে হবে অনলাইনে আগামী ৩ মার্চ সন্ধ্যা ৬টার মধ্যে। ইন্ডিয়ান সিভিল সার্ভিস এগজামিনেশন, ২০২০-র নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি নম্বর 05/2020-CSP, ইন্ডিয়ান ফরেস্ট সার্ভিস এগজামিনেশন ২০২০-র নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি নম্বর 06/2020-IFoS, দুটি বিজ্ঞপ্তিই প্রকাশের তারিখ ১২-০২-২০২০। প্রার্থী বাছাই করবে ইউনিয়ন পাবলিক সার্ভিস কমিশন। দুটি চাকরির জন্যই, প্রথমে একই প্রিলিমিনারি পরীক্ষায় বসতে হবে। প্রিলিমিনারি পরীক্ষা হবে আগামী ৩১ মে। প্রিলিমিনারি পরীক্ষায় পাশ করার পর মেন পরীক্ষা হবে আলাদা-আলাদা ভাবে।

সিভিল সার্ভিস এগজামিনেশন, ২০২০-র মাধ্যমে নিয়োগ হবে নিচের পদগুলিতে: (১) ইন্ডিয়ান অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ সার্ভিস, (২) ইন্ডিয়ান ফরেন সার্ভিস, (৩) ইন্ডিয়ান পুলিশ সার্ভিস, (৪) ইন্ডিয়ান পি অ্যান্ড টি অ্যাকাউন্টস অ্যান্ড ফিনান্স সার্ভিস, গ্রুপ এ, (৫) ইন্ডিয়ান অডিট অ্যান্ড অ্যাকাউন্টস সার্ভিস, গ্রুপ এ, (৬) ইন্ডিয়ান রেভিনিউ সার্ভিস (কাস্টমস অ্যান্ড সেন্ট্রাল এক্সাইজ) গ্রুপ এ, (৭) ইন্ডিয়ান ডিফেন্স অ্যাকাউন্টস সার্ভিস, গ্রুপ এ, (৮) ইন্ডিয়ান রেভিনিউ সার্ভিস (আইটি) গ্রুপ এ, (৯) ইন্ডিয়ান অর্ডন্যান্স ফ্যাক্টরিজ সার্ভিস, গ্রুপ এ (অ্যাসিস্ট্যান্ট ওয়ার্ক ম্যানেজার, অ্যাডমিনিস্ট্রেশন), (১০) ইন্ডিয়ান পোস্টাল সার্ভিস, গ্রুপ এ, (১১) ইন্ডিয়ান সিভিল অ্যাকাউন্টস সার্ভিস, গ্রুপ এ, (১২) ইন্ডিয়ান রেলওয়ে ট্রাফিক সার্ভিস, গ্রুপ এ, (১৩) ইন্ডিয়ান রেলওয়ে অ্যাকাউন্টস সার্ভিস, গ্রুপ এ, (১৪) ইন্ডিয়ান রেলওয়ে পার্সোনেল সার্ভিস, গ্রুপ এ, (১৫) পোস্ট অব অ্যাসিস্ট্যান্ট সিকিউরিটি কমিশনার ইন রেলওয়ে প্রোটেকশন ফোর্স, গ্রুপ এ, (১৬) ইন্ডিয়ান ডিফেন্স এস্টেট সার্ভিস, গ্রুপ এ, (১৭) ইন্ডিয়ান ইনফরমেশন সার্ভিস (জুনিয়র গ্রেড) গ্রুপ এ, (১৮) ইন্ডিয়ান ট্রেড সার্ভিস, গ্রুপ এ, (১৯) ইন্ডিয়ান কর্পোরেট ল সার্ভিস, গ্রুপ এ, (২০) আর্মড ফোর্সেস হেডকোয়ার্টার্স সিভিল সার্ভিস, গ্রুপ বি (সেকশন অফিসার’স গ্রেড), (২১) দিল্লি, আন্দামান অ্যান্ড নিকোবর আইল্যান্ডস, লাক্ষাদ্বীপ, দমন অ্যান্ড দিউওদাদরা অ্যান্ড নগর হাভেলি সিভিল সার্ভিস, গ্রুপ বি, (২২) দিল্লি, আন্দামান অ্যান্ড নিকোবর আইল্যান্ডস, লাক্ষাদ্বীপ, দমন অ্যান্ড দিউ ও দাদরা অ্যান্ড নগর হাভেলি পুলিশ সার্ভিস, গ্রুপ বি (২৩) পণ্ডিচেরি সিভিল সার্ভিস গ্রুপ বি, (২৪) পণ্ডিচেরি পুলিশ সার্ভিস গ্রুপ বি।

সিভিল সার্ভিস এগজামিনেশন, ২০২০-র শূন্যপদ: ৭৯৬, এরমধ্যে ২৪টি পদ শারীরিক প্রতিবন্ধীদের জন্য সংরক্ষিত। এই ২৪টি পদের জন্য ৩টি দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী, ৯টি মূক-বধির, ৮টি লোকোমোটর, ৪টি মাল্টিডিসেবিলিটির প্রার্থীদের জন্য।

ইন্ডিয়ান ফরেস্ট সার্ভিস এগজামিনেশন ২০২০-র শূন্যপদ: ৯০।

বয়সসীমা (উভয় ক্ষেত্রেই): ১ আগস্ট, ২০২০ তারিখের হিসাবে বয়স হতে হবে ন্যূনতম ২১ বছর। বয়সের ঊর্ধ্বসীমা ৩২ বছর। অর্থাৎ জন্মতারিখ হতে হবে ২ আগস্ট, ১৯৮৮ থেকে ১ আগস্ট ১৯৯৯ তারিখের মধ্যে। যথাযথ ক্ষেত্রে বয়সের ঊর্ধ্বসীমায় ছাড় পাওয়া যাবে।

শিক্ষাগত যোগ্যতা: ইন্ডিয়ান সিভিল সার্ভিস এগজামিনেশন, ২০২০-এর জন্য স্বীকৃত বিশ্ববিদ্যালয় থেকে যে-কোনো শাখায় গ্র্যাজুয়েট হতে হবে।

ইন্ডিয়ান ফরেস্ট সার্ভিস এগজামিনেশন ২০২০-র জন্য স্বীকৃত বিশ্ববিদ্যালয় থেকে গ্র্যাজুয়েট হতে হবে নিচের বিষয়গুলির মধ্যে অন্তত একটি নিয়ে। বিষয়: অ্যানিমাল হ্যাজব্যান্ড্রি অ্যান্ড ভেটেরিনারি সায়েন্স, বটানি, কেমিস্ট্রি, জিওলজি, ম্যাথমেটিক্স, ফিজিক্স, স্ট্যাটিস্টিক্স ও জুলজি। অথবা এগ্রিকালচার বা ফরেস্ট্রিতে বা ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে ব্যাচেলর ডিগ্রি থাকতে হবে।

এবারের গ্র্যাজুয়েশনের পরীক্ষার্থীরাও শর্তসাপেক্ষে আবেদন করতে পারবেন, সেক্ষেত্রে যোগ্যতা সম্পূর্ণ করার প্রামাণপত্র পেয়ে থাকতে হবে মূল পর্বের পরীক্ষায় আবেদন করার সময়। সিভিল সার্ভিস এগজামিনেশন, ২০২০ এবং ইন্ডিয়ান ফরেস্ট সার্ভিস এগজামিনেশন ২০২০-র ক্ষেত্রে সাধারণ ক্যাটেগরির প্রার্থীরা ছয় বার এই পরীক্ষায় বসতে পারবেন। যাঁরা ইতিমধ্যেই ছ-বার পরীক্ষা দিয়েছেন কিন্তু সফলতা পাননি তাঁরা এই পরীক্ষায় বসার জন্য অন্যান্য যোগ্যতা থাকলেও আবেদন করতে পারবেন না। ওবিসি ও সাধারণ শারীরিক প্রতিবন্ধী প্রার্থীরা ৯ বার এই পরীক্ষায় বসতে পারবেন। তপশিলি প্রার্থীদের ক্ষেত্রে এই পরীক্ষায় বসার কোনো বারের সীমা নেই।

শারীরিক মাপজোক: কয়েকটি পদের ক্ষেত্রে উপযুক্ত স্বাস্থ্য থাকা দরকার। দৃষ্টিশক্তি সংক্রান্ত কিছু বাধ্যবাধকতা আছে। বিস্তারিত জানা যাবে ওয়েবসাইটে।

পরীক্ষা পদ্ধতি: লিখিত পরীক্ষা হবে দুটি ধাপে। প্রিলিমিনারি পরীক্ষা ও মেন পরীক্ষা। সবাইকেই প্রথমে সিভিল সার্ভিসের প্রিলিতে বসতে হবে। প্রিলিমিনারি পরীক্ষায় দুটি পেপার থাকবে। প্রতি পেপারে ২০০ নম্বর করে প্রশ্ন থাকবে। সময় প্রতি পেপারে ২ ঘণ্টা করে। দুটি পেপারেই প্রশ্ন হবে অবজেক্টিভ টাইপের। নেগেটিভ মার্কিং থকেবে ০.৩৩ হারে। জেনারেল স্টাডিজ পেপার-টুতে ন্যূনতম সাফল্যমান (৩৩ শতাংশ নম্বর) ও জেনারেল স্টাডিজ পেপার-ওয়ানে মোট সাফল্যমানের ভিত্তিতে মূলপর্বের পরীক্ষার জন্য উত্তীর্ণ প্রার্থীদের তালিকা প্রস্তুত করা হবে (মোট শূন্যপদের ১২-১৩গুণ)। প্রিলিমিনারির নম্বর মেধাতালিকায় যোগ হবে না। প্রশ্ন থাকবে ইংরাজি ও হিন্দি ভাষায়।

পরীক্ষার সিলেবাস, পরীক্ষা পদ্ধতি ও প্রশ্নপত্রের ব্যাপারে বিস্তারিত জানা যাবে নিচের ওয়েবসাইট থেকে।

ইন্ডিয়ান সিভিল সার্ভিস এগজামিনেশন, ২০২০ পরীক্ষার ক্ষেত্রে মেন পরীক্ষা হবে ৯টি পেপারে। মোট নম্বর ১৭৫০, সফল হলে ২৭৫ নম্বরের ইন্টারভিউ। পরীক্ষা হবে দুটি বিভাগে। পেপার-১ ভারতীয় সংবিধানের ৮ম তপশিলভুক্ত যে-কোনো একটি ভাষা (২২টি ভাষার মধ্যে                                     থেকে) বিষয়ে পরীক্ষা দেওয়া যাবে। মোট নম্বর ৩০০। এবং পেপার-১ ইংরেজি বিষয়ের পরীক্ষা হবে ৩০০ নম্বরের। এই ২টি পেপারে প্রশ্ন হবে মাধ্যমিক মানের এবং তাতে কেবল পাশ করতে হবে (প্রতিটিতে ২৫ শতাংশ নম্বর তুলতে হবে) নম্বর মেধাতালিকায় যোগ হবে না। এছাড়া থাকবে আরও ৭টি পেপার (জেনারেল স্টাডিজ-ওয়ান, টু, থ্রি, ফোর, অপশনাল পেপার-ওয়ান, টু)। প্রতিটিতে ২৫০ নম্বর (অপশলালের বিষয় বাছা যাবে ২৬টি বিষয়ের মধ্যে থেকে) সেগুলির নম্বর মেধাতালিকায় যোগ হবে। এই ৭ পেপারের পরীক্ষা দেওয়া যাবে সংবিধানের ৮ম তপশিলভুক্ত যে-কোনো ভাষায়। এই পর্বের বিস্তারিত সিলেবাস জানা যাবে ওয়েবসাইটে। এই বিভাগে সফল হলে পার্সোন্যালিটি টেস্ট হবে ২৭৫ নম্বরের। মোট দাঁড়াল ২০২৫ নম্বরের পরীক্ষা।

ইন্ডিয়ান ফরেস্ট সার্ভিস এগজামিনেশন ২০২০-এর ক্ষেত্রে মেন পরীক্ষায় ৬টি পেপার থাকবে। পরীক্ষা হবে ডিসেম্বরে। প্রথম পেপারে জেনারেল ইংলিশের উপর প্রশ্ন থাকবে। মোট নম্বর ৩০০। দ্বিতীয় পেপারে জেনারেল নলেজের উপর প্রশ্ন থাকবে ৩০০ নম্বরের। তৃতীয়, ৪র্থ, ৫ম ও ৬ষ্ঠ পেপারে থাকবে ২টি করে ভাগ (যে-কোনো ২টি বেছে নেওয়া বিষয়ের প্রতিটির ১ম পত্র ও ২য় পত্র হিসাবে ৪ পেপারে মোট ৪টি ভাগ) প্রতি অংশে ২০০ করে নম্বর। প্রশ্ন থাকবে ইংরাজিতে এবং উত্তর দিতে হবে ইংরাজিতেই। মেন পরীক্ষায় সফল হলে ইন্টারভিউ হবে ৩০০ নম্বরের।

পরীক্ষাকেন্দ্র: পূর্ব ও উত্তর-পূর্বাঞ্চলের পরীক্ষা হবে কলকাতা, শিলিগুড়ি, আগরতলা, গ্যাংটক, পাটনা, পোর্ট ব্লেয়ার, রাঁচি, সম্বলপুর, জোরহাট, শিলং, কটক ও ডিশপুর কেন্দ্রে, তাছাড়া উত্তর-পূর্বাঞ্চলের অন্যান্য রাজধানী শহরে। প্রার্থী কোন কেন্দ্রে পরীক্ষা দিতে ইচ্ছুক অনলাইন আবেদনের সময় সেটির উল্লেখ করতে হবে।

অ্যাডমিট কার্ড: প্রার্থীদের আলাদাভাবে ডাকযোগে অ্যাডমিট কার্ড পাঠানো হবে না। পরীক্ষার তিন সপ্তাহ আগে প্রার্থীদের নামে ই-অ্যাডমিট সার্টিফিকেট (অ্যাডমিট কার্ড) আপলোড করা হবে। www.upsc.gov.in ওয়েবসাইট থেকে ওই অ্যাডমিট কার্ডটি ডাউনলোড করতে হবে।

আবেদনের ফি: প্রথমে আবেদন করতে হবে শুধু প্রিলিমিনারি পরীক্ষার জন্য, তার ফি ১০০ টাকা। অনলাইন এবং অফলাইন উভয় পদ্ধতিতেই ফি জমা দেওয়া যাবে। অনলাইন আবেদনের পার্ট টু রেজিস্ট্রেশনের সময় ‘পে বাই ক্যাশ’ অপশনে ক্লিক করলে নির্দিষ্ট চালান (পে-ইন স্লিপ) পাওয়া যাবে। ওই স্লিপটি নিয়ে এসবিআই ব্যাঙ্কের যে-কোনো শাখায় নগদে ফি জমা দেওয়া যাবে। পার্ট টু রেজিস্ট্রেশনের পরবর্তী কাজের দিন ব্যাঙ্কের কাজের সময়ের মধ্যে ফি জমা দিতে হবে। ২ মার্চ, ২০২০ তারিখ রাত ১১টা ৫৯ মিনিটের পর ‘পে বাই ক্যাশ’ মোডটি বন্ধ হয়ে যাবে। অনলাইনে ফি জমা দেওয়া যাবে স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়ার নেট ব্যাঙ্কিং/ মাস্টার ক্রেডিট/ ডেবিট কার্ডের মাধ্যমে। অনলাইন ফি জমা দেওয়া যাবে আগামী ৩ মার্চ সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত। তপশিলি, শারীরিক প্রতিবন্ধী, মহিলা এবং অর্থনৈতিক অনগ্রসর সংখ্যালঘু প্রার্থীদের কোনো ফি লাগবে না। প্রিলিমিনারি পরীক্ষায় সফল হলে আবেদন করা যাবে শুধু সিভিল সার্ভিস (প্র্লিমিনারি) বা শুধু ফরেস্ট সার্ভিস (প্রিলিমনিারি) বা দুই পরীক্ষার জন্যই, সেক্ষেত্রে আবেদনের ফি দিতে হবে একটি পরীক্ষার জন্য হলে ২০০ টাকা, ২টি পরীক্ষার জন্যই হলে ৪০০ টাকা।

আবেদনের পদ্ধতি: www.upsconline.nic.in ওয়েবসাইটে গিয়ে অনলাইন আবেদন করতে হবে। বৈধ ইমেল আইডি ও মোবাইল নম্বর থাকতে হবে। ওয়েবসাইটে দেওয়া নির্দেশ অনুযায়ী ফর্ম পূরণ করবেন। অনলাইন আবেদন করা যাবে আগামী ৩ মার্চ পর্যন্ত।

বয়স, শিক্ষাগত যোগ্যতা, আবেদনের পদ্ধতি, ফি জমা দেওয়ার পদ্ধতি সহ এব্যাপারে খুঁটিনাটি তথ্য পাওয়া যাবে www.upsc.gov.inএবংwww.upsconline.nic.in ওয়েবসাইটে। অনলাইন আবেদন সক্রান্ত কোনো জিজ্ঞাসা বা কোনো সমস্যা হলে তার জন্য যে-কোনো কাজের দিন সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত আছে হেল্পলাইন নম্বর: 011-23381125/011-23385271/011-23098543.

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *