fbpx

সরকারি চাকরির পরীক্ষার যোগ্যতা

কোন যোগ্যতায় কোন চাকরি

 

মাধ্যমিক

বিভিন্ন পদ ( রেলের পিওন, হেল্পার, খালাসি, পোর্টার, গ্যাংম্যান, পয়েন্টসম্যান, ট্র্যাকমান, গেটম্যান, সাফাইওয়ালা, ওয়েটার, ক্লিনার ইত্যাদি, মিলিটারি ইঞ্জিনিয়ার সার্ভিসে মোটর ড্রাইভার, চৌকিদার, সাফাইওয়ালা, মিটার রিডার, কেনম্যান, স্টোর কিপার- পিওন ইত্যাদি পদে, বিভিন্ন আদালতের প্রসেস সার্ভার, পিওন ইত্যাদি, পঞ্চায়েত- পুরসভা – হাসপাতালগুলির এরকম নানা পদে)   সেনাবাহিনীতে সোলজার ( ডিউটি/ট্রেডসম্যান ) কেন্দ্রীয়  ও রাজ্য সরকারের বিভিন্ন দপ্তর ও আধাসামরিক বাহিনীগুলিতে মাল্টিটাস্কিং স্টাফ ( ফরাশ, পিওন, জমাদার, বেয়ারা, চৌকিদার, মালি, ধোবি, ভিস্তিওয়ালা ইত্যাদি)   সরঞ্জামের কারখানায় ফায়ারম্যান, রাজ্য স্টাফ সিলেকশন কমিশনের পরীক্ষার মাধ্যমে রাজ্য সরকারের অফিসগুলির লোয়ার ডিভিশন ক্লার্ক/   স্টাফ সিলেকশন কমিশনের পরীক্ষার মাধ্যমে কৃষি প্রযুক্তি সহায়ক পদে,   রাজ্য পুলিশ, কলকাতা পুলিশ ও আধাসামরিক বাহিনীগুলিতে কনস্টেবল/ জুনিয়র কনস্টেবল/ রাইফেলম্যান,   পুলিশে জেল ওয়ার্ডার/ ওয়ার্ডার,   মেলগার্ড/ পোস্টম্যান ও গ্রামীণ ডাকসেবক ( ডাকসেবক পোস্ট মাস্টার ও এমটিএস), রাজ্য খাদ্য দপ্তরে সাব-   ক্লার্ক, টাইপিস্ট, পঞ্চায়েতকর্মী, কোস্টগার্ডে কুক, স্টুয়ার্ড, এনরোল্ড ফলোয়ার ইত্যাদি। বর্ডার রোডস অর্গানাইজেশনে পাইয়োনিয়ার, ফলোয়ার ইত্যাদি পদে,   পরমাণু কেন্দ্রে ট্রেনি টেকনিশিয়ান পদে, অ্যাপ্রেন্টিসশিপের সুযোগ পাওয়া যায় গার্ডেনরিচ সহ বিভিন্ন জাহাজ ও জাহাজ মেরামতি কারখানায়, প্রতিরক্ষা সরঞ্জাম তৈরির অর্ডন্যান্স ফ্যাক্টরিগুলিতে।

উচ্চমাধ্যমিক

মাধ্যমিক যোগ্যতার ওই পদগুলি ছাড়াও সরকারের সারা দেশের সব অফিসে লোয়ার ডিভিশন ক্লার্ক, পোস্টাল অ্যাসিস্ট্যান্ট ও ডেটা এন্ট্রি অপারেটর নিয়োগের জন্য স্টাফ সিলেকশন কমিশনের কম্বাইন্ড হায়ার সেকেন্ডারি লেভেল এগজামিনেশন। প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদ/ পিএসসি/ কলকাতা পুরসভা/ রেল/ কেন্দ্রীয় বিদ্যালয় সংগঠন/ দিল্লি ও অন্য কিছু রাজ্যের পরীক্ষার মাধ্যমে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকতা ( উপযুক্ত নম্বর ও টেট/ সহ ট্রেনিং থাকলে) সেনাবাহিনীর   আরও কিছু পদে ( সোলজার ক্লার্ক/সোলজার / স্টোরকিপার) নৌবাহিনীর   আর্টিফিসার অ্যাপ্রেন্টিস।  বিজ্ঞান শাখায় পাশ হলে উপকূলরক্ষী বাহিনীর নাবিক। বিমান বাহিনীর এয়ারম্যান।   নৌ – বিমান – সেনাবাহিনীর সিনিয়র সেকেন্ডারি এন্ট্রি/ স্কিমে ও ইউপিএসসির ন্যাশনাল ডিফেন্স অ্যাকাডেমি অ্যান্ড ন্যাভাল অ্যাকাডেমি পরীক্ষার মাধ্যমে বিই/ পড়িয়ে নানা পদ ও ক্যাডারে।   ডকইয়ার্ডে নন- ইন্ডাস্ট্রিয়াল গ্রুপ সি পদে।  ফিজিক্স, কেমিস্ট্রি ম্যাথস নিয়ে পড়া থাকলে রেলের ও আরও নানা সংস্থার অ্যাপ্রেন্টিস ও টেকনিশিয়ান গ্রেড- পদে।   ডাকবিভাগের পোস্টাল/ সর্টিং অ্যাসিস্ট্যান্ট পদে।   সরকারের সারাদেশের অফিস ও দপ্তর এবং আধাসামরিক বাহিনীগুলির ক্লার্ক পদে এবং টাইপরাইটিং ও স্টেনোগ্রাফি জানা থাকলে যথাক্রমে টাইপিস্ট ও স্টেনোগ্রাফারের গ্রুপ-সি পদে।   রাজ্য আবগারি বিভাগের সাব- ইন্সপেক্টর। স্টাফ সিলেকশন কমিশনের পরীক্ষার মাধ্যমে বনবিভাগের ডেপুটি রেঞ্জার/ফরেস্টার। নন-অফিসিয়াল ম্যারেজ অফিসার। যাত্রীবাহী বিমানের কেবিন ক্রু। বীমা কোম্পানিগুলিতে অ্যাসিস্ট্যান্ট।  জীবন বীমার এজেন্সির মাধ্যমেও প্রতিষ্ঠিত হওয়া যায়। এরকম     বিভিন্ন সরকারি সংস্থার পাশাপাশি রয়েছে হাজারো বেসরকারি সংস্থা, সেখানেও পাওয়া যেতে পারে যোগ্যতা মাফিক কাজ।  নানারকম ট্রেনিংয়ের মাধ্যমে সরকারি চাকরিরও, যেমন রাজ্য সরকার ও বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের নার্সিং ট্রেনিং (মাধ্যমিক যোগ্যতায় অগজিলিয়ারি নার্সিং- মিডওয়াইফারি ও উচ্চমাধ্যমিক যোগ্যতায় জেনারেল নার্সিং- মিডওয়াইফারি ট্রেনিং) সশস্ত্রবাহিনীর জেনারেল নার্সিং বা বিএসসি নার্সিং বা এমবিবিএস কোর্সে ট্রেনিং দিয়ে চাকরি ইত্যাদি।

 

মাধ্যমিকউচ্চমাধ্যমিক বেশি যোগ্যতায়

যাঁরা মাধ্যমিক- উচ্চমাধ্যমিক পরম্পরায় কোনোক্রমে গ্র্যাজুয়েটট হয়ে সরকারি চাকরির পরীক্ষাতেই বসতে চান তাঁদেরও এখন থেকে মনস্থির করে আশুকর্তব্য ছকে নিতে হবে। পথ কী- যাঁরা কোনোক্রমে গ্র্যাজুয়েট হয়ে সরকারি চাকরির পরীক্ষাতেই বসতে চান তাঁদের গ্র্যাজুয়েশন করার জন্য এমন কিছু শাখা বা বিষয় বাছা উচিত যাতে ডিগ্রি পাবার জন্য পড়াশোনায় সময় দিতে হবে কম। এক্ষেত্রে আপনার মূল লক্ষ্য যেহেতু অ্যাকাডেমিক কৃতিত্ব নয়, দূরলক্ষ্য একটি সরকারি চাকরি, তাই আসল চেষ্টা ও সময় দেওয়া উচিত এখন থেকেই চাকরির পরীক্ষার উপযুক্ত প্রস্তুতির জন্য যাতে ঝুঁকির সম্ভাবনা নূন্যতম ও সাফল্যের সম্ভাবনা সর্বাধিক হতে পারে। অধ্যাপনা, গবেষণা ইত্যাদি কয়েকটি ক্ষেত্রে ছাড়া প্রায় সব সরকারি চাকরিতেই সর্বোচ্চ যে যোগ্যতা চাওয়া হয় তা হল গ্র্যাজুয়েটট ডিগ্রি।

গ্র্যাজুয়েটশন করার পর যেসব সরকারি চাকরির জন্য আবেদন করা যায় :

মাধ্যমিক- যোগ্যতার চাকরিগুলি ছাড়াও দেশের সমস্ত রেলপথে নন-টেকনিক্যাল পপুলার ক্যাটেগরির পদগুলিতে (কমার্শিয়াল অ্যাপ্রেন্টিস, ট্রাফিক অ্যাপ্রেন্টিস, এনকোয়্যারি কাম রিজার্ভেশন ক্লার্ক, গুডস গার্ড, জুনিয়র অ্যাকাউন্টস অ্যাসিস্ট্যান্ট কাম টাইপিস্ট, সিনিয়র ক্লার্ক কাম টাইপিস্ট, অ্যাসিস্ট্যান্ট স্টেশন মাস্টার, ট্রাফিক অ্যাসিস্ট্যান্ট ও সিনিয়র টাইম কিপার ইত্যাদি) পিএসসি মিসলেনিয়াস সার্ভিসেস রিক্রুটমেন্ট পরীক্ষার মাধ্যমে রাজ্য সরকারের বিভিন্ন দপ্তরের অফিসারের পদে। ইউপিএসসি ও পিএসসির সিভিল সার্ভিসেস পরীক্ষার মাধ্যমে যথাক্রমে কেন্দ্রীয় ও রাজ্য সরকারের প্রশাসনিক শীর্ষপদগুলিতে। ইউপিএসসি ও পিএসসির ফরেস্ট সার্ভিস পরীক্ষার মাধ্যমে বনবিভাগে ফরেস্ট রেঞ্জার, বিট অফিসার ইত্যাদি পদে।  ফিজিক্স নিয়ে বিএসসি পড়ে থাকলে মেটিওরলজিস্ট পদে। বিএসসি পাশ হলে বিভিন্ন সংস্থায় ল্যাব অ্যাসিস্ট্যান্ট পদের জন্য। কমার্স নিয়ে পড়ে থাকলে পিএসসির পরীক্ষার মাধ্যমে ওয়েস্ট বেঙ্গল অডিট অ্যান্ড অ্যাকাউন্টস/ অডিট অ্যান্ড অ্যাকাউন্টস সার্ভিসে।   সমস্ত রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্কের, স্টেটব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়ার ও স্টেট ব্যাঙ্কের সহযোগী ব্যাঙ্কগুলির জন্য ক্ল্যারিক্যাল ও প্রবেশনারি অফিসার পদে।   ব্যাঙ্ক, সিডবি, আইডিবিআই, বিভিন্ন সমবায় ব্যাঙ্ক ইত্যাদিতেও অফিসার ও অ্যাসিস্ট্যান্ট/ পদে। স্টাফ সিলেকশন কমিশনের কম্বাইন্ড গ্র্যাজুয়েটট লেভেল পরীক্ষার মাধ্যমে কেন্দ্রীয় সরকারের বিভিন্ন বিভাগ ও দপ্তরের ইনস্পেক্টর, ইউডিসি, অ্যাকাউন্ট্যান্ট, অ্যাসিস্ট্যান্ট ও অন্যান্য অফিসার পদে।   বীমা কোম্পানিগুলিতে অফিসার/অ্যাসিস্ট্যান্ট। এয়ারপোর্ট অথরিটিতে জুনিয়র এগজিকিউটিভ পদে।   স্টাফ সিলেকশন কমিশনের কম্বাইন্ড গ্র্যাজুয়েটট লেভেল পরীক্ষার মাধ্যমে রাজ্য সরকারের অফিসার পর্যায়ের পদগুলিতে।   সামরিক – আধাসামরিক বাহিনীগুলিরও অফিসার নানা পদে। এয়ারফোর্সের এয়ারম্যান পদে। কম্বাইন্ড ডিফেন্স সার্ভিসেস পরীক্ষার মাধ্যমে আর্মি- ট্রেনিং দিয়ে অফিসারের নানা পদে।  আর্মি – নেভি – এয়ারফোর্সের  সরাসরি বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে ট্রেনিং দিয়ে অফিসার পদে। স্টাফ সিলেকশন কমিশনের মাধ্যমে কেন্দ্রীয় আধাসামরিক বাহিনীগুলির সাব ইনস্পেক্টর ও এএসআই পদে।   পাবলিক সার্ভিস কমিশনের মাধ্যমে কেন্দ্রীয় আধাসামরিক বাহিনীগুলিতে অ্যাসিস্ট্যান্ট কম্যান্ড্যান্ট পদে।   কোস্টগার্ডে অ্যাসিস্ট্যান্ট কম্যান্ড্যান্ট পদে।   বিটি/ পিজিবিটি/ বিএবিএড/ বিএসসিবিএড ইত্যাদি করা থাকলে মাধ্যমিক স্কুলগুলিতে শিক্ষকতা, ওই যোগ্যতার সঙ্গে হিন্দি/ পড়াতে পারলে কেন্দ্রীয় বিদ্যালয়, সামরিক বাহিনী, নবোদয় বিদ্যালয় এসবেও পড়ানোর সুযোগ।   ইঞ্জিনিয়ারিং সার্ভিসেস পরীক্ষার মাধ্যমে ইঞ্জিনিয়ারিং গ্র্যাজুয়েটটদের জন্য, তাছাড়া   ইঞ্জিনিয়ার ও সিনিয়র টেকনিশিয়ানের নানা পদে।  বিদ্যুৎ উত্পাদন কেন্দ্রে ল্যাব অ্যাসিস্ট্যান্ট ট্রেনি পদে এবং  রাজ্যে পঞ্চায়েত- পুরসভাগুলিতে ইঞ্জিনিয়ার পদে। সামরিক – আধাসামরিক বাহিনীগুলিতে সরাসরি বিজ্ঞপ্তি দিয়ে বিই-বিটেকদের নানা পদে। ডাক্তারি  স্নাতকদের জন্য পশ্চিমবঙ্গ সহ বিভিন্ন রাজ্য সরকারের চাকরি ছাড়াও ইউপিএসসি ও সশস্ত্র বাহিনীর মাধ্যমে কেন্দ্রীয় সরকার ও আর্মড ফোর্সেস মেডিক্যাল হসপিটালগুলিতে। রেডিও – টিভি চ্যানেলগুলোতে সংবাদপাঠক, ঘোষক, প্রযোজক পদে। ডিফেন্স রিসার্চ ডেভেলপমেন্ট অর্গানাইজেশন ( ইন্ডিয়ান এয়ারলাইন্স, অন্যান্য বিমান সংস্থা, ইন্টেলিজেন্স ব্যুরো, বিভিন্ন কোলফিল্ড, পশ্চিমবঙ্গ সহ বিভিন্ন রাজ্যের বিদ্যুৎ সংস্থা, পরমাণু গবেষণা কেন্দ্র, সংসদ সচিবালয়, ইস্পাত কারখানা, মিলিটারি ইঞ্জিনিয়ার সার্ভিস, বর্ডার রোডস অর্গানাইজেশন ইত্যাদিতে নানা পদে।

ইঞ্জিনিয়ারিং ডিপ্লোমাধারীদের জন্য: নিয়মিত নিয়োগ হয় প্রধানত রেল, কেন্দ্রীয় সরকার, রাজ্য সরকার, বিভিন্ন পঞ্চায়েত- পুরসভা  ও সামরিক-আধাসামরিক বাহিনীগুলিতে। যেমন:

কেন্দ্রীয় স্টাফ সিলেকশন কমিশনের মাধ্যমে সেন্ট্রাল ওয়াটার কমিশন, সিপিডব্লুডি, ডাক বিভাগ এবং মিলিটারি ইঞ্জিনিয়ার সার্ভিস ( দেশজুড়ে ছড়িয়ে থাকা অফিসগুলিতে জুনিয়র ইঞ্জিনিয়ার পদে। প্রতিরক্ষা সরঞ্জামের কারখানাগুলিতে গ্রুপ-বি  পদে। নিয়মিত র‌্যালি মাধ্যমে সেনাবাহিনীর সোলজার টেকনিক্যাল পদে।   রেলের অ্যাসিস্ট্যান্ট লোকো পাইলট ও জুনিয়র ইঞ্জিনিয়ার/ ইঞ্জিনিয়ার পদে। পিএসসি পরীক্ষার মাধ্যমে রাজ্য সরকারের সাব-অর্ডিনেট   সার্ভিসে জুনিয়র ইঞ্জিনিয়ার পদে। রাজ্য সরকার ও পঞ্চায়েত-পুরসভাগুলোর  সাব- ইঞ্জিনিয়ার পদে।   স্টাফ সিলেকশন কমিশনের কম্বাইন্ড টেকনিক্যাল লেভেল রিক্রুটমেন্ট এগজামিনেশনের মাধ্যমে ইঞ্জিনিয়ারিং ও টেকনোলজিক্যাল কলেজগুলির টেকনিক্যাল অ্যাসিস্ট্যান্ট পদে। কোস্ট গার্ডে যান্ত্রিক পদে।  সিআরপি সহ বিভিন্ন আধাসামরিক বাহিনীতে অ্যাসিস্ট্যান্ট সাবইনস্পেক্টর (টেকনিক্যাল) পদে। সাবইনস্পেক্টর (ওয়ার্কস / ইলেকট্রিকাল)/ এএসআই (রেডিও মেকানিক) পদে বিএসএফে।  ম্যাজাগন ডক সহ বিভিন্ন ডক/ ডকইয়ার্ড/ জাহাজ মেরামতি কারখানায় স্কিল্ড ওয়ার্কার, চার্জম্যান ইত্যাদি নানা পদে।   বিদ্যুৎ উত্পাদন কেন্দ্রে ডিপ্লোমা ট্রেনি পদে। ডেডিকেটেড ফ্রেট করিডরে এগজিকিউটিভ পদে। ব্যুরো অব ইন্ডিয়ান স্ট্যান্ডার্ডসে টেকনিশিয়ান পদে।   ডিআরডিওতে টেকনিক্যাল অ্যাসিস্ট্যান্ট পদে। ইন্ডিয়ান অয়েল, ভারত পেট্রোলিয়াম, বিদ্যুৎ উত্পাদন কেন্দ্র, হেভি ইঞ্জিনিয়ারিং কর্পোরেশন, কেন্দ্রীয় সার ও রসায়ন কারখানা, নেভেলি লিগনাইট, বিভিন্ন ইস্পাত কারখানা, পুরসভা ও আরও নানা সংস্থায় ট্রেনি/ ইঞ্জিনিয়ার ট্রেনি/ ইঞ্জিনিয়ার পদে ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারদের নিয়োগ করা হয়। রিসার্ভ ব্যাঙ্কেও ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার নিয়োগ হয়।  ব্যাঙ্ক / বীমার কোনো পদে উচ্চমাধ্যমিক যোগ্যতা চাওয়া হলে ইঞ্জিনিয়ারিং ডিপ্লোমাকে সমতুল ধরা হয়।

আইটিআই/ সার্টিফিকেটধারীদের জন্য:

রেল, প্রতিরক্ষা সরঞ্জামের বিভিন্ন কারখানা, ডক/ ডকইয়ার্ড/ জাহাজ কারখানা, সামরিক/আধাসামরিক বাহিনী, বিদ্যুৎ উত্পাদন কেন্দ্র ইত্যাদিতে টেকনিশিয়ান পদে। বিদ্যুৎ উত্পাদন কেন্দ্রে আর্টিজান ট্রেনি পদে।   বিভিন্ন ইস্পাত কারখানায় জুনিয়র ট্রেনি পদে।   এরকমই অন্যান্য কারিগরি উত্পাদনমূলক সংস্থায়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *