fbpx

ব্যাঙ্ক অব বরোদায় ৩৬১ স্পেশ্যালিস্ট অফিসার

ব্যাঙ্ক অব বরোদায় ৩৬১ জন স্পেশ্যালিস্ট অফিসার নিয়োগ করা হবে। নিচের যোগ্যতার যে-কোনো ভারতীয়রা আবেদন করতে পারবেন।

শূন্যপদ: পোস্ট কোড ১: রিলেশনশিপ ম্যানজোর (স্কেল এসএমজি/এস ফোর): শূন্যপদ ২৫। পোস্ট কোড ২: রিলেশনশিপ ম্যানেজার (এমএমজি/এস থ্রি): শূন্যপদ ৫৯। পোস্ট কোড  ৩: মনিটরিং/ প্রসেসিং অব লোনস (এসএমজি/ এস ফোর): শূন্যপদ ৭৫। পোস্ট কোড ৪: মনিটরিং/ প্রসেসিং অব লোনস (এমএমজি/ এস থ্রি): শূন্যপদ ৬২। পোস্ট কোড ৫: ফিনান্স/ ক্রেডিট (এমএমজি/এস থ্রি): শূন্যপদ ১০০। পোস্ট কোড ৬: ফিনান্স/ ক্রেডিট (এমএমজি/এস টু): শূন্যপদ ৪০। যে-কোনো একটি পদের জন্য আবেদন করতে পারবেন।

বয়সসীমা: পোস্ট কোড ১ ও ৩-এর ক্ষেত্রে বয়স হতে হবে ২৮-৪০ বছরের মধ্যে (জন্মতারিখ ১ এপ্রিল ১৯৭৮-১ এপ্রিল ১৯৯০)। পোস্ট ২, ৪ ও ৫-এর ক্ষেত্রে বয়স হতে হবে ২৫-৩৭ বছরের মধ্যে (জন্মতারিখ ১ এপ্রিল ১৯৮১-১ এপ্রিল ১৯৯৩)। পোস্ট কোড ৬-এর ক্ষেত্রে বয়স হতে হবে ২৫-৩৫ বছরের মধ্যে (জন্মতারিখ ১ এপ্রিল ১৯৮৩ বা তার পরে হতে হবে)। সবক্ষত্রেই ১ এপ্রিল ২০১৮ তারিখের হিসেবে বয়স ধরা হবে। সংরক্ষিত শ্রেণির প্রার্থীরা নিয়ম অনুযায়ী বয়সের ঊর্ধ্বসীমায় ছাড় পাবেন।

যোগ্যতা: সবক্ষেত্রেই যোগ্যতা দরকার এআইসিটিই স্বীকৃত কোনো ইনস্টিটিউট থেকে সিএ/ আইসিডব্লুএ/ ২ বছরের রেগুলার কোর্সে (করেসপন্ডেন্স/পার্টটাইম/ডিস্ট্যান্স নয়) এমবিএ বা পিজিডিএম (ফিনান্সে স্পেশ্যালাইজেশন, ডুয়াল স্পেশ্যালাইজেশন হলে ফিনান্সে মেজর, দুয়ের বেশি স্পেশ্যালাইজেশন হলে আবেদন করা যাবে না) অথবা সমতুল পোস্ট গ্র্যাজুয়েট ডিগ্রি বা ডিপ্লোমা।

অভিজ্ঞতা: ওপরের মতো যোগ্যতা সম্পূর্ণ হওয়ার পর কোনো শিডিউল্ড কমার্শিয়াল ব্যাঙ্কে বা তার অ্যাসোশিয়েট/সাবসিডিয়ারি ব্যাঙ্কে বা সরকারি/বেসরকারি ক্ষেত্রের অর্থিক সংস্থা/এনবিএফসি/নামী রেটিং সংস্থায় অভিজ্ঞতা দরকার পোস্ট কোড ১-এর জন্য অন্তত ৬ বছরের, পোস্ট কোড ২-এর জন্য চার বছরের, পোস্ট কোড ৩-এর জন্য ৬ বছরের, পোস্ট কোড ৪-এর জন্য চার বছরের, পোস্ট কোড ৫-এর জন্য চার বছরের, পোস্ট কোড ৬-এর জন্য দু বছরের। অভিজ্ঞতার বিষয়ে অন্যান্য শর্ত জানা যাবে নিচের ওয়েবসাইটে।

সব পদের ক্ষেত্রেই শিক্ষাগত যোগ্যতা ও অভিজ্ঞতা সম্পূর্ণ হতে হবে ১ এপ্রিল ২০১৮ তারিখের মধ্যে।

প্রার্থী বাছাই পদ্ধতি: গ্রুপ ডিসকাশন/ পার্সোনাল ইন্টারভিউ/ সাইকোমেট্রিক টেস্টের মাধ্যমে প্রার্থী বাছাই করা হবে।

আবেদনের ফি: ৬০০ টাকা (আবেদনের ফি+ ইন্টিমেশন চার্জ)। তপশিলি জাতি/ উপজাতি ও শারীরিক প্রতিবন্ধী প্রার্থীদের আবেদেনর ফি দিতে হবে না, তাঁদের শুধুমাত্র ইন্টিমেশন চার্জ বাবদ ১০০ টাকা দিতে হবে। ডেবিট কার্ড (রুপে/ ভিসা/ মাস্টার কার্ড/ ম্যাস্ট্রো), ক্রেডিট কার্ড, ইন্টারনেট ব্যাঙ্কিং, আইএমপিএস, ক্যাশ কার্ড/ মোবাইল ওয়ালেটের মাধ্যমে ফি দেওয়া যাবে

আবেদনের পদ্ধতি: www.bankofbaroda.co.in ওয়েবসাইটে গিয়ে অনলাইন আবেদন করতে হবে। বৈধ ইমেল আইডি ও ফোন নম্বর থাকতে হবে। অনলাইন আবেদন করার আগে নিজের সাম্প্রতিক পাসপোর্ট মাপের ছবি ও স্বাক্ষর স্ক্যান করে রাখতে হবে। ছবির ডাইমেনশন হতে হবে ২০০×২৩০ পিক্সেল (বাঞ্ছনীয়ত), মাপ ২০-৫০ কেবির মধ্যে। সাদা কাগজে কালো কালির পেন দিয়ে স্বাক্ষর করতে হবে, ডাইমেনশন ১৪০×৬০ পিক্সেল (বাঞ্ছনীয়ত), মাপ ১০-২০ কেবির মধ্যে। স্ক্যানার রেজলিউশন ২০০ ডিপিআই। ছবি ও স্বাক্ষর জেজিপি বা জেপেগ ফরম্যাটে স্ক্যান করতে হবে। অনলাইন আবেদন করার সময় ছবি ও স্বাক্ষর নির্দিষ্ট স্থানে আপলোড করতে হবে। অনলাইন আবেদন করা যাবে ২৫ এপ্রিল থেকে ১৭ মে ২০১৮ তারিখ পর্যন্ত। অন্যান্য প্রাসঙ্গিক তথ্য জানা যাবে উপরোক্ত ওয়েবসাইটে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *