fbpx

কেন্দ্রীয় পুলিশের ৫ বাহিনীতে ৩৯৮

বর্ডার সিকিউরিটি ফোর্স, সেন্ট্রাল রিজার্ভ পুলিস ফোর্স, ইন্দো-টিবেটান বর্ডার পুলিস, সেন্ট্রাল ইন্ডাস্ট্রিয়াল সিকিউরিটি ফোর্স ও সশস্ত্র সীমাবল— এই পাঁচ কেন্দ্রীয় পুলিশ বাহিনীতে ৩৯৮ জন তরুণ-তরুণী নিয়োগ করা হবে অ্যাসিস্ট্যান্ট কমান্ড্যান্ট পদে। ইউনিয়ন পাবলিক সার্ভিস কমিশনের সেন্ট্রাল আর্মড পুলিস ফোর্সেস (অ্যাসিস্ট্যান্ট কমান্ড্যান্টস) পরীক্ষা ২০১৮-র মাধ্যমে। এগজামিনেশন নোটিস নম্বর: 08/2018-CPF, তারিখ ২৫.০৪.২০১৮। অনলাইন আবেদন করা যাবে ২১ মে ২০১৮ পর্যন্ত। পরীক্ষা হবে ১২ আগস্ট ২০১৮ তারিখে।

শূন্যপদ: পাঁচ কেন্দ্রীয় পুলিশ বাহিনীর মধ্যে বর্ডার সিকিউরিটি ফোর্সে ৬০, সেন্ট্রাল রিজার্ভ পুলিস ফোর্সে ১৭৯, সেন্ট্রাল ইন্ডাস্ট্রিয়াল সিকিউরিটি ফোর্সে ৮৪, ইন্দো-টিবেটান বর্ডার পুলিসে ৪৬, সশস্ত্র সীমাবলে ২৯।

শিক্ষাগত যোগ্যতা: কোনো স্বীকৃত বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ব্যাচেলর ডিগ্রি। যাঁরা স্নাতক স্তরের চূড়ান্ত বর্ষের পরীক্ষা দিচ্ছেন তাঁরাও শর্তসাপেক্ষে আবেদন করতে পারবেন। এনসিসিসি বি অথবা সি সার্টিফিকেট থাকলে বাঞ্ছনীয় যোগ্যতা হিসেবে গণ্য হবে। ইন্টারভিউ/পার্সোন্যালিটি টেস্টের সময় এটি দেখা হবে।

বয়সসীমা: ১ আগস্ট ২০১৮ তারিখ অনুযায়ী প্রার্থীরা বয়স হতে হবে ২০ থেকে ২৫ বছরের মধ্যে (জন্মতারিখ ২ আগস্ট ১৯৯৩ সালের আগে ও ১ আগস্ট ১৯৯৮ সালের পরে হলে হবে না)। সংরক্ষিত শ্রেণির প্রার্থীরা নিয়ম অনুযায়ী বয়সের ঊর্ধ্বসীমায় ছাড় পাবেন।

শারীরিক মাপজোক: পুরুষ প্রার্থীদের ক্ষেত্রে উচ্চতা হতে হবে ১৬৫ সেন্টিমিটার, বুকের ছাতি না ফুলিয়ে ও ফুলিয়ে যথাক্রমে ৮১ ও ৮৬ সেন্টিমিটার। বয়স ও উচ্চতার সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ ওজন হতে হবে (তালিকা ওয়েবসাইটে), ন্যূনতম ওজন ৫০ কেজি। মহিলা প্রার্থীদের উচ্চতা হতে হবে অন্তত ১৫৭ সেন্টিমিটার, বয়স ও উচ্চতার সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ ওজন হতে হবে (তালিকা ওয়েবসাইটে)। ন্যূনতম ওজন ৪৬ কেজি। দৃষ্টিশক্তি: চশমা ছাড়া দূরের দৃষ্টি ভালো চোখে ৬/৬ ও খারাপ চোখে ৬/১২ অথবা দু চোখেই ৬/৯। কাছের দৃষ্টি সংশোধিত ভালো চোখে এন-৬ ও খারাপ চোখে এন-৯। স্বাভাবিক কালার ভিশন থাকতে হবে (কালার পার্সেপশন ইশিহারা চার্ট অনুযায়ী সিপি-থ্রি)। চশমা বা ল্যাসিক সার্জারির ক্ষেত্রে মায়োপিয়া থাকলে মাইনাস ৪.০০ ডি ও হাইপারমেট্রোপিয়া থাকলে প্লাস ৪.০০ ডির মধ্যে হতে হবে। ভাঙা হাঁটু, চ্যাটালো পায়ের পাতা, শিরাস্ফীতি, ট্যারা চাউনি, বর্ণান্ধতা, তোতলামি থাকলে আবেদন করতে পারবেন না। টিবি বা কোনো ধরনের আর্থ্রাইটিস, উচ্চ রক্তচাপজনিত সমস্যা, ডায়াবেটিস, হাঁপানি বা হৃদ্‌রোগের কোনো সমস্যা থাকলেও আবেদন করবেন না। শারীরিক ও মানসিক দিক থেকে পুরোপুরি সুস্থ হতে হবে।

প্রার্থী বাছাই পদ্ধতি: লেখা পরীক্ষা, ফিজিক্যাল স্ট্যান্ডার্ড, ফিজিক্যাল এফিশিয়েন্সি টেস্ট, মেডিক্যাল স্ট্যান্ডার্ড টেস্ট ও ইন্টারভিউ/পার্সোন্যালিটি টেস্টের মাধ্যমে প্রার্থী বাছাই করা হবে। লেখা পরীক্ষা হবে ১২ আগস্ট ২০১৮ তারিখে। লেখা পরীক্ষায় দুটি পেপার থাকবে। পেপার ওয়ানের পরীক্ষা হবে সকাল ১০টা থেকে বেলা ১২টা পর্যন্ত ও পেপার টু-এর পরীক্ষা দুপুর ২টো থেকে বিকাল ৫টা। পেপার ওয়ানে থাকবে জেনারেল এবিলিটি অ্যান্ড ইন্টেলিজেন্স, মোট ২৫০ নম্বরের অবজেক্টিভ টাইপের প্রশ্ন। ইংরেজি ও হিন্দিতে পরীক্ষা দেওয়া যাবে। প্রশ্ন থাকবে জেনারেল মেন্টাল এবিলিটি, জেনারেল সায়েন্স, জাতীয় ও আন্তর্জাতিক গুরুত্বপূর্ণ সাম্প্রতিক ঘটনা, ভারতীয় রাষ্ট্রনীতি ও অর্থনীতি, ভারতের ইতিহাস, ভারতের ও পৃথিবীর ভূগোল। পেপার ওয়ানে নেগেটিভ মার্কিং থাকবে, প্রতি ৩টি ভুলের জন্য ১ নম্বর কাটা যাবে। পেপার টু-তে থাকবে জেনারেল স্টাডিজ, এসে ও কম্প্রিহেনশন। ২০০ নম্বরের পরীক্ষা। এসে রাইটিংয়ের ক্ষেত্রে হিন্দি বা ইংরেজিতে লেখার সুযোগ থাকবে কিন্তু প্রেসি ও কম্প্রিহেনশনের ক্ষেত্রে শুধুমাত্র ইংরেজি ভাষা ব্যবহার করা যাবে।

লেখা পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হলে ফিজিক্যাল স্ট্যান্ডার্ড, ফিজিক্যাল এফিশিয়েন্সি টেস্ট ও মেডিক্যাল স্ট্যান্ডার্ড টেস্টের জন্য ডাকা হবে। পুরুষ প্রার্থীদের ক্ষেত্রে ১৬ সেকেন্ডে ১০০ মিটার দৌড়তে হবে। ৩ মিনিট ৪৫ সেকেন্ডে ৮০০ মিটার দৌড়তে হবে। ৩.৫ মিটার লং জাম্প (৩ বার সুযোগ পাবেন)। ৭.২৬ কেজি শটপুট ৪.৫ মিটার। মহিলা প্রার্থীদের ক্ষেত্রে ১৮ সেকেন্ডে ১০০ মিটার দৌড়তে হবে। ৪ মিনিট ৪৫ সেকেন্ডে ৮০০ মিটার দৌড়তে হবে। ৩.০ মিটার লং জাম্প (৩ বার সুযোগ পাবেন)। মেডিক্যাল স্ট্যান্ডার্ড টেস্টে উত্তীর্ণ হলে ইন্টারভিউপার্সোন্যালিটি টেস্টের জন্য ডাকা হবে। ইন্টারভিউ/পার্সোন্যালিটি টেস্টে ১৫০ নম্বর থাকবে।

পরীক্ষার তিন সপ্তাহ আগে ইউপিএসসির ওয়েবসাইট থেকে ই-অ্যাডমিশন কার্ড ডাউনলোড করা যাবে, আলাদা কোনো অ্যাডমিশন কার্ড পোস্টে পাঠানো হবে না।

আবেদনের ফি: আবেদনের ফি বাবদ ২০০ টাকা দিতে হবে। মহিলা ও তপশিলি জাতি/উপজাতি প্রার্থীদের আবেদনের ফি দিতে হবে না। ভিসা, মাস্টার, রুপে, ডেবিট কার্ড, ক্রেডিট, নেট ব্যাঙ্কিংয়ের মাধ্যমে ফি দেওয়া যাবে। নেট ব্যাঙ্কিংয়ের ক্ষেত্রে ফি দেওয়া যাবে স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়ার নেট ব্যাঙ্কিং ব্যবস্থার মাধ্যমে। এছাড়া ২০ মের মধ্যে ডাউনলোড করা পে-ইন স্লিপের মাধ্যমে স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়ার যে-কোনো শাখায় আবেদনের ফি নগদে জমা দেওয়া যাবে কেবলমাত্র পরের দিন, স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়ার যে-কোনো শাখায়, ব্যাঙ্কের কাজের সময়ের মধ্যে। পে-ইন স্লিপের মাধ্যমে আবেদনের ফি দেওয়ার ক্ষেত্রে পার্ট টু রেজিস্ট্রেশনের সময় সিস্টেম জেনারেটেড পে-ইন স্লিপের প্রিন্ট-আউট নিতে হবে।

আবেদনের পদ্ধতি: www.upsconline.nic.in ওয়েবসাইটে গিয়ে অনলাইন আবেদন করতে হবে। অনলাইন আবেদন করার আগে আবেদনের পদ্ধতি সম্পর্কে ওয়েবসাইটে দেখে নেওয়া ভালো। একটির বেশি আবেদনপত্র সাবমিট করলে আবেদনপত্র বাতিল করে দেওয়া হবে। অনলাইন আবেদনপত্র পূরণ করার সময় পরীক্ষাকেন্দ্র বাছাই করতে হবে। পরীক্ষা কেন্দ্রের তালিকা নিচে দেওয়া হয়েছে। অনলাইন আবেদন করার আগে ছবি ও স্বাক্ষর স্ক্যান করে রাখতে হবে। ছবির মাপ হতে হবে ৩-৪০ কেবির মধ্যে। স্বাক্ষরের মাপ হতে হবে ১ থেকে ৪০ কেবির মধ্যে। ছবি ও স্বাক্ষর জেপিজি ফরম্যাটে স্ক্যান করতে হবে। অন্যান্য প্রাসঙ্গিক তথ্য জানা যাবে উপরোক্ত ওয়েবসাইটে। যাঁরা আগে কখনও এই বাহিনীগুলির কোনোটিতে এই পদে চাকরির জন্য নির্বাচিত হয়েছিলেন তাঁরা নতুন করে আর আবেদন করতে পারবেন না।

গুরুত্বপূর্ণ তারিখ: অনলাইন আবেদন করা যাবে ২১ মে ২০১৫৮ সন্ধে ৬টা পর্যন্ত। পে-ইন স্লিপের প্রিন্ট-আউট নেওয়া যাবে ২০ মে ২০১৮ তারিখ রাত ১১.৫৯ পর্যন্ত। পরীক্ষাকেন্দ্র: Kolkata, Agartala, Dispur, Jorhat, Patna, Ranchi, Cuttack, Sambalpur, Port Blair, Shillong, Gangtok, Delhi, Panaji (Goa), Ahmedabad, Hyderabad, Aizawl, Imphal, Allahabad, Itanagar, Raipur, Bangalore, Jaipur, Bareilly, Jammu, Bhopal, Chandigarh, Kochi, Shimla, Chennai, Kohima, Srinagar, Thiruvananthapuram, Dehradun, Lucknow, Tirupati, Madurai, Udaipur, Dharwad, Mumbai, Vishakhapatnam, Nagpur.

দরখাস্ত করতে কোনো সমস্যা হলে কাজের দিন সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৫টার মধ্যে ফোন করতে পারেন এই নম্বরে: 011-23385271/011-23381125/011-23098543.

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *