fbpx

রেলে সাবইনস্পেক্টর নেবে কীভাবে

নিজস্ব প্রতিনিধি: আরপিএফ/আরপিএসএফ অর্থাৎ রেলওয়ে প্রোটেকশন ফোর্সে এবং রেলওয়ে প্রোটেকশন স্পেশ্যাল ফোর্সে কনস্টেবল যেমন নেওয়া হবে তেমনই নেওয়া হবে সাবইনস্পেক্টর, অ্যাসিস্ট্যান্ট কম্যান্ড্যান্ট ও আরও নানা পদে। তার জন্য প্রয়োজনীয় যোগ্যতা, বয়স, শারীরিক মান ইত্যাদিও নির্ধারিত হয়েছে, নিয়ম-কানুন আপডেট করা হয়েছে মার্চ ২০১৮ পর্যন্ত।

কনস্টেবল নিয়োগের কথা আলাদাভাবে আলোচনা করা হয়েছে, সাবইনস্পেক্টর ও অ্যাসিস্ট্যান্ট কম্যান্ড্যান্ট পদেও সরাসরি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে অনলাইনে দরখাস্ত চেয়ে নিয়োগ হয়। অন্যান্য পদের নিয়োগ পদোন্নতি, বিভাগীয় পরীক্ষা, ডেপুটেশন ইত্যাদির মাধ্যমে। প্রশাসনিক স্তরের পদে ইউপিএসসির পরীক্ষার মাধ্যমে, ক্ল্যারিকাল স্তরে স্টাফ সিলেকশন কমিশনের মাধ্যমে— এরকম কিছু-কিছু ক্ষেত্রও আছে।

সাবইনস্পেক্টর পদের নিয়োগ হবে বিজ্ঞপ্তি প্রাকাশের পর দরখাস্ত চেয়ে। সাবইনস্পেক্টর (এগজিঃ) ও সাবইনস্পেক্টর (ব্যান্ড) পদে নিয়োগ হয়। এবার মোটামুটি ১ হাজার এসআই নেওয়া হবে আশা করা যায়। অর্ধেক পদ মহিলাদের জন্য হবার সম্ভাবনা।

শিক্ষাগত যোগ্যতা: এই পদে আবেদনের জন্য শিক্ষাগত যোগ্যতা দরকার অন্তত গ্র্যাজুয়েট ডিগ্রি, বয়স বিজ্ঞপ্তির তারিখে ২০-২৫ বছরের মধ্যে (আগে ছিল ২৩ বছরের মধ্যে)। তপশিলি প্রভৃতি প্রার্থীরা নিয়মানুযায়ী বয়সের ছাড় পাবেন।

শারীরিক মান: উচ্চতা হতে হবে অন্তত ১৬৫ সেমি (আগে ছিল ১৭০ সেমি), বুকের ছাতি না ফুলিয়ে ৮০ সেমি, ফুলিয়ে ৮৫ সেমি। মহিলাদের উচ্চতা হতে হবে ১৫৭ সেমি। ২০-র নিচে বয়স হলে উচ্চতায় ২.৫ সেমি ও ছাতিতে ৫ সেমি ছাড় দেওয়া হতে পারে (যদি মেডিকেল অফিসার মনে করেন যে ২০ বছর বয়স হলে প্রার্থী সাধারণ নির্ধারিত মান অর্জন করতে পারবেন)। তপশিলিরা উচ্চতায় ৫ সেমি, ছাতিতে ৩.৮ সেমি এবং গোর্খা-গাড়োয়ালি প্রভৃতি পার্বত্য অঞ্চলের বাসিন্দারা উচ্চতায় ২ সেমি ছাড় পাবেন।

শারীরিক ও মানসিক দিক দিয়ে সম্পূর্ণ সুস্থ হতে হবে। চশমার ব্যবহার, ভাঙা হাঁটু, পায়ের চ্যাটালো পাতা ইত্যাদি থাকলে আবেদন করা যাবে না।

খেলাধুলা বা সঙ্গীতে দক্ষতা, এনসিসি ইত্যাদি থাকলে তার জন্য বাড়তি মূল্যায়ন হতে পারে।

চূড়ান্তভাবে নির্বাচিত হলে ডাক্তারি পরীক্ষা ও অন্যান্য ভেরিফিকেশনও আছে।

নিয়োগ হলে প্রথম ২ বছর প্রবেশনে থাকতে হবে, প্রয়োজনে প্রবেশনের মেয়াদ বাড়তে পারে। শুরুতে আউটডোর-ইনডোর ট্রেনিংও দেওয়া হবে। ট্রেনিংয়ের শেষে পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হতে হবে, সর্বাধিক দুবারের সুযোগে। সফল না হলে চাকরি থেকে বাতিল।

প্রার্থী বাছাই পদ্ধতি ও আবেদনের পদ্ধতি কনস্টেবলের মতোই, পরীক্ষার সিলেবাসও একই, তবে তার মান হবে গ্র্যাজুয়েশন স্তরের। সাবইনস্পেক্টর (ব্যান্ড) পদের জন্য কম্পিউটার ভিত্তিক লিখিত পরীক্ষা হবে না (কনস্টেবল (ব্যান্ড) পদের জন্যও ওই পরীক্ষা নেই।

শারীরিক সক্ষমতার পরীক্ষায় পুরুষদের ১৬০০ মিটার দৌড়তে হবে ৬ মিনিট ৩০ সেকেন্ডে, ১২ ফুট লংজাম্প, ৩ ফুট ৯ ইঞ্চি হাইজাম্প। মহিলাদের ক্ষেত্রে যথাক্রমে ৪ মিনিটে ৮০০ মিটার, ৯ ফুট, ৩ ফুট।

বিজ্ঞপ্তি কবে বেরোবে এখনই বলা যাচ্ছে না, সমস্ত ব্যাপারে যথাসময়ে জানিয়ে দেব, জানতে পারবেন এই লিঙ্কেও: http://www.indianrailways.gov.in/railwayboard/view_section.jsp?id=0,1,304,366,533

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *