fbpx

কোস্ট গার্ডে উচ্চমাধ্যমিক তরুণদের জন্য

ভারতীয় কোস্ট গার্ডে ১০+২ এন্ট্রি স্কিমে ০১/২০১৯ ব্যাচে ট্রেনিং দিয়ে কিছু নাবিক (জেনারেল ডিউটি) নিয়োগ করা হবে। ভারতীয় অবিবাহিত পুরুষরা আবেদনের যোগ্য।

শিক্ষাগত যোগ্যতা: ন্যূনতম ৫০ শতাংশ নম্বর এবং ম্যাথমেটিক্স ও ফিজিক্স বিষয়ের প্রতিটিতে ৫০ শতাংশ নম্বর সহ উচ্চমাধ্যমিক (১০+২) বা সমতুল পাশ। তপশিলি প্রার্থীরা এবং জাতীয় ও আন্তঃরাজ্য স্তরের প্রতিযোগিতায় প্রথম, দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থানাধীকারী খেলোয়াড়রা নম্বরের ক্ষেত্রে ৫ শতাংশ ছাড় পাবেন।

বয়স: ন্যূনতম বয়সসীমা ১৮ বছর এবং বয়সের ঊর্ধ্বসীমা ২২ বছর। জন্মতারিখ ১ ফেব্রুয়ারি ১৯৯৭ থেকে ৩১ জানুয়ারি ২০০১-এর মধ্যে হতে হবে। বয়সের ঊর্ধ্বসীমায় তপশিলিরা ৫ বছর এবং ওবিসিরা ৩ বছর ছাড় পাবেন।

দৈহিক মাপজোক: ন্যূনতম উচ্চতা হতে হবে ১৫৭ সেমি। পার্বত্য অঞ্চলের বাসিন্দারা উচ্চতার ক্ষেত্রে ছাড় পবেন নিয়মানুয়ারী। উচ্চতার সঙ্গে ওজন সামঞ্জস্যপূর্ণ হতে হবে। বুকের ছাতি ৫ সেন্টিমিটার পর্যন্ত ফোলানোর ক্ষমতা থাকতে হবে। চোখের দৃষ্টিমান ৬/৬ (ভালো চোখে) এবং ৬/৯ (খারাপ চোখে)। উপযুক্ত শ্রবণশক্তি থাকতে হবে। শরীরে স্থায়ী ট্যাটু থাকলে সে বিষয়ে কিছু কড়াকড়ি আছে, বিস্তারিত জানা যাবে ওয়েবসাইট থেকে।

বেতনক্রম: সপ্তম বেতন কমিশনের পে লেভেল ৩ অনুযায়ী বেসিক পে ২১,৭০০ টাকা। অন্যান্য ভাতাও আছে।

প্রার্থী বাছাই পদ্ধতি: প্রথমে দরখাস্তের মূল্যায়নের ভিত্তিতে সেন্টারওয়াড়ি প্রার্থী বাছাই করা হবে। এরপর লিখিত পরীক্ষার জন্য নির্বাচিত প্রার্থীদের তালিকা ওয়েবসাইটে দেওয়া হবে। লিখিত পরীক্ষা হবে আগামী সেপ্টেম্বর/ অক্টোবর ২০১৮ নাগাদ, অবজেক্টিভ টাইপের। লিখিত পরীক্ষায় সফল হলে ফিজিক্যাল ফিটনেস টেস্ট এবং সবশেষে মেডিকেল টেস্ট। ফিজিক্যাল ফিটনেস টেস্টে থাকবে ৭ মিনিটে ১.৬ কিলোমিটার দৌড়, ২০টি স্কোয়াট-আপ (উঠ-বস), ১০টি পুশ-আপ। ২-৩ দিন ধরে এই টেস্ট চলবে। ফিজিক্যাল ফিটনেস টেস্টের প্রতি ধাপে সফল হলে তবেই মেডিকেল টেস্ট হবে। সফলদের ট্রেনিং শুরু হবে ফেব্রুয়ারি ২০১৯ নাগাদ।

আবেদনের পদ্ধতি:  www.joinindiancoastguard.gov.in ওয়েবসাইটে গিয়ে অনলাইন আবেদন করতে হবে। বৈধ ইমেল আইডি ও মোবাইল নম্বর থাকতে হবে। উপরের ওয়েবসাইটে গিয়ে Opportunities লেখা জায়গায় ক্লিক করতে হবে। ওয়েবসাইটে দেওয়া নির্দেশমতো ফর্ম পূরণ করে ‘I Agree’ লেখা জায়গায় ক্লিক করার পর সাবমিট করতে হবে। আবেদনপত্রটি পূরণ করার সময় নিজের বৈধ ইমেল আইডি ও মোবাইল নম্বর দিতে হবে। অনলাইন আবেদন করার আগে নিজের একটি পাসপোর্ট মাপের ছবি ও স্বাক্ষর জেপেগ ফরম্যাটে স্ক্যান করে নেবেন। ছবির মাপ হতে হবে ১০ থেকে ৪০ কেবির মধ্যে এবং স্বাক্ষরের মাপ ১০ থেকে ৩০ কেবির মধ্যে। অনলাইন আবেদন করা যাবে ১ জুলাই থেকে ১০ জুলাই ২০১৮ বিকাল ৫টা পর্যন্ত।

পরীক্ষার দিন, সময়, জায়গা সংক্রান্ত তথ্যগুলি ইমেল আইডি মারফত জানিয়ে দেওয়া হবে নির্বাচিত প্রার্থীদের। আবেদন করার পর পূরণ করা আবেদনপত্রের তিনটি প্রিন্ট-আউট নিয়ে নিতে হবে। আবেদনপত্রের এক কপি প্রিন্ট-আউটের সঙ্গে দশম এবং দ্বাদশ শ্রেণির মার্কশিট, সার্টিফিকেট, কাস্ট সার্টিফিকেট ইত্যাদি মূল প্রমাণপত্র ও সেগুলির একটি করে ফটোকপি তৈরি রাখবেন, পরীক্ষার দিন সঙ্গে নিয়ে যেতে হবে। তিনটি প্রন্ট-আউটের কপির নির্দিষ্ট জায়গায় নীল ব্যাকগ্রাউন্ডে তোলা রঙিন পাসপোর্ট সাইজের ছবি সাঁটিয়ে দেবেন এবং নিচের নির্দিষ্ট জায়গায় সই করবেন। এছাড়া কোস্ট গার্ড সংক্রান্ত অন্যান্য যাবতীয় তথ্য পাওয়া যাবে উপরোক্ত ওয়েবসাইটেই।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *