fbpx

ডিআইদের রিপোর্টের ওপর নির্ভর করছে স্কুল সার্ভিসের অনেকগুলি বিষয়

৫ অক্টোবর রাজ্যের জেলা বিদ্যালয় পরিদর্শকরা শিক্ষাদপ্তরে কী রিপোর্ট পাঠান তার উপর নির্ভর করছে অনেক কিছু। এখনও পর্যন্ত স্কুলে নবম-দশম শ্রেণির শিক্ষক নিয়োগ প্রক্রিয়া আটকে রয়েছে। কাউন্সেলিং হয়ে গেলেও নির্বাচিতরা চূড়ান্ত নিয়োগপত্র হাতে পাননি। বিভিন্ন ক্যাটেগরি ভিত্তিক শূন্যপদের তালিকা শিক্ষাদপ্তরের ছাঁকনিতে পরীক্ষিত হবার পর ডিআইদের কাছ থেকে সেই চূড়ান্ত তালিকা হাতে এলে কাজ শুরু করবে স্কুল সার্ভিস কমিশন। এমনটাই খবর স্কুল শিক্ষা দপ্তর সূত্রে।

তবে এই রিপোর্টের জন্য শুধুমাত্র স্কুলের নবম-দশম স্তরে নিয়োগই নয়, আরো অনেক কিছু নির্ভর করে রয়েছে। যেটুকু খবর পাওয়া গেছে, তাতে এই নতুন রিপোর্টের পর শূন্যপদের হেরফের হবেই। অফিস থেকে নয়, সরাসরি স্কুলে গিয়ে পরিদর্শন করে এসে বিস্তারিত রিপোর্ট জমা দেওয়ার জন্য নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। স্বাবাভিকভাবেই, এই রিপোর্টের উপর শূন্যপদের হেরফের হলে আবার কাউন্সেলিংয়ের সমূহ সম্ভাবনা রয়েছে। যে কারণে নবম-দশম শ্রেণির নিয়োগ আপাতত আটকে। ২০১২-তে এসএসসি নিয়োগের সময় শূন্যপদ ছিল ৪৪ হাজার। তার মধ্যে ৩২ হাজার শিক্ষক নিয়োগ করা হয়েছে। যেটুকু বাকি আছে, সেটা এই ছয় বছরে অনেকাংশেই বেড়ে গিয়েছে। ফলত, নিয়োগের অনেক কিছুই নির্ভর করছে এই রিপোর্টের উপর।

বেসরকারি সূত্রে জানা গিয়েছে, আগামী ডিসেম্বরের মধ্যেই স্কুল সার্ভিস কমিশনের মাধ্যমে ঝুলে থাকা সমস্ত শিক্ষক পদে নিয়োগপ্রক্রিয়া শেষ করে দিতে চাইছে রাজ্যের শিক্ষা দপ্তর। এর মধ্যে নবম-দশম শ্রেণি থেকে শুরু করে ওয়ার্ক এডুকেশন, ফিজিক্যাল এডুকেশন বিষয়ের শিক্ষক নিয়োগ সবই রয়েছে।

আবার অন্যদিকে, আরেকটি বিষয় ত্বরান্বিত হতে চলেছে এই রিপোর্টকে ঘিরে। অনেকদিন আগেই স্কুলগুলির কাছে নির্দেশ গিয়েছিল শেষ শূন্যপদগুলি ডিআইদের কাছে জানাতে, সেখান তালিকা আসবে কমিশনারেটে। এর পাশাপাশি আগামী দিনে যে এসএলএসটি নিয়োগ হবে, তা হতে চলেছে এনসিটিইর নতুন নিয়ম অনুযায়ী, যেক্ষেত্রে পরীক্ষার ধরন, সিলেবাস এবং সর্বোপরি পরীক্ষা গ্রহণ ও নিয়োগ সংক্রান্ত  খসড়া  জমা দেওয়ার কথা রয়েছে। ফলে, নতুন স্কুল সার্ভিসের মাধ্যমে নিয়োগ প্রক্রিয়াও অনেকটা ত্বরান্বিত হতে চলেছে এই রিপোর্টের ভিত্তিতে।

এই কদিন স্কুল সার্ভিস কমিশনের নিয়োগ সংক্রান্ত কাজ বিঘ্নিত, বিলম্বিত। ৫ তারিখের পর যাতে সদর্থক কিছু পদক্ষেপ করা হয়, তার দিকেই তাকিয়ে রয়েছে স্কুল সার্ভিস পরীক্ষার্থী, স্কুলের চাকরিপ্রার্থীরা।

 

SSC, SSC News, School Job in West BEngal, Jobs in West Bengal

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *