fbpx

এয়ারফোর্সে উচ্চমাধ্যমিক এয়ারম্যান নিয়োগ

প্রশিক্ষণ দিয়ে অবিবাহিত পুরুষদের গ্রুপ ‘এক্স’ (এডুকেশন ইনস্ট্রাক্টর ছাড়া), গ্রুপ ‘ওয়াই’ (অটোমোবাইল টেকনিশিয়ান, গ্রাউন্ড ট্রেনিং ইনস্ট্রাক্টর ছাড়া), ইন্ডিয়ান এয়ার ফোর্স (পুলিশ), ইন্ডিয়ান এয়ার ফোর্স (সিকিউরিটি এবং মিউজিশিয়ান ছাড়া) ট্রেডে নিয়োগ করা হবে। অনলাইন আবেদন করা যাবে ২১ জানুয়ারি ২০১৯ তারিখ পর্যন্ত।

শিক্ষাগত যোগ্যতা: গ্রুপ ‘এক্স’-এর ক্ষেত্রে (ম্যাথমেটিক্স, ফিজিক্স ও ইংরাজি নিয়ে পড়ে) ন্যূনতম ৫০ শতাংশ নম্বর সহ উচ্চমাধ্যমিক/ সমতুল পাশ অথবা ইঞ্জিনিয়ারিং-এ (অনলাইন আবেদনের ড্রপডাউন মেনুতে দেওয়া যে-কোনো শাখায়) ওই নম্বর সহ ৩ বছরের ডিপ্লোমা পাশ হলে আবেদন করা যাবে। গ্রুপ ‘ওয়াই’- এর ক্ষেত্রে যে-কোনো স্ট্রিমে ৫০ শতাংশ নম্বর নিয়ে উচ্চমাধ্যমিক/ সমতুল পাশ, মেডিকেল অ্যাসিস্ট্যান্টের ক্ষেত্রে ফিজিক্স, কেমিস্ট্রি, বায়োলজি এবং ইংরেজি সহ ন্যূনতম ৫০ শতাংশ পেয়ে উচ্চমাধ্যমিক/ সমতুল পাশ হতে হবে।

প্রতি ক্ষেত্রেই ইংরাজিতে ৫০ শতাংশ নম্বর থাকা জরুরি। গ্রুপ-এক্স এর জন্য যাঁরা যোগ্য, তাঁরা গ্রুপ-ওয়াইয়েরও যোগ্য, তাই আবেদন করার সময় দুটি গ্রুপের জন্য অপশন দিতে পারেন।

বয়স: ১৯ জানুয়ারি ১৯৯৯ থেকে ১ জানুয়ারি ২০০৩-এর মধ্যে জন্মতারিখ হতে হবে। চূড়ান্তভাবে নির্বাচিত হলে যোগদানের সময় বয়স হবে ২১-এর মধ্যে।

বেতন: প্রথমে ট্রেনিংয়ের সময় মাসে ১৪৬০০ টাকা স্টাইপেন্ড দেওয়া হবে। পরে চাকরির শুরুতে গ্রুপ ‘এক্স’ ট্রেডের মূল বেতন ৩৩১০০ টাকা এবং গ্রুপ ‘ওয়াই’ ট্রেডের ২৬৯০০ টাকা। সরকারি এবং সামরিক অন্যান্য ভাতা ও সুযোগ-সুবিধাও আছে। নিয়োগ হবে প্রাথমিকভাবে ২০ বছরের জন্য, তবে শর্তসাপেক্ষে তা বেড়ে ৫৭ বছর বয়স পর্যন্ত হতে পারে। পদোন্নতি হতে পারে মাস্টার ওয়ার‍্যান্ট র‍্যাঙ্ক পর্যন্ত।

শারীরিক মাপজোক: এক্স/ওয়াই উভয় ক্ষেত্রেই ন্যূনতম উচ্চতা দরকার ১৫২.৫ সেন্টিমিটার। উচ্চতা ও বয়স অনুযায়ী উপযুক্ত ওজন (অপারেশন্স অ্যাসিস্ট্যান্ট ট্রেডের জন্য অন্তত ৫৫ কেজি), বুকের ছাতির মাপ, সুস্বাস্থ্য থাকতে হবে। চোখের কোনো অপারেশন (পিআরকে/ ল্যাসিক) হয়ে থাকলে আবেদন করা যাবে না। উপযুক্ত শ্রবণশক্তি (৬ মিটার দূর থেকে জোরে ফিশফিশ করে বলা কথাও স্পষ্ট শোনার ক্ষমতা) ও সুন্দর দাঁতের গঠন থাকতে হবে। শারীরিক ও মানসিকভাবে সক্ষম হতে হবে। শরীরে স্থায়ী ট্যাটু বা উল্কি থাকলে সেক্ষেত্রে কিছু শর্তের কড়াকড়ি আছে। শিখ প্রার্থীদের চুল, দাড়ি, গোঁফ গ্রাহ্য হবে।

প্রার্থী বাছাই পদ্ধতি: অনলাইনে ফেজ-ওয়ানের একটি পরীক্ষার মাধ্যমে প্রাথমিকভাবে প্রার্থী বাছাই করা হবে। পরীক্ষা হবে ১৪-১৭ মার্চ ২০১৯। বিস্তারিত সিলেবাস পাবেন নিচের ওয়েবসাইটে, মূল বিজ্ঞপ্তিতে। ওই পরীক্ষার ১৫ দিন পর ওয়েবসাইটে ফল প্রকাশিত হবে এবং সফল প্রার্থীদের ফেজ-টুর পরীক্ষার জন্য নতুন অ্যাডমিট কার্ড আপলোড করা হবে। অ্যাডমিট কার্ড মেল করেও পাঠানো হবে আগামী মার্চ নাগাদ। ফেজ-টু-র জন্য কী-কী সঙ্গে নিয়ে যেতে হবে তাও জানতে পারবেন ওয়েবসাইটেই। চূড়ান্ত ফল বেরোবে ২০১৯ সালের ৩১ অক্টোবর। সফল প্রার্থীদের এনরোলমেন্টের জন্য চিঠিও পাঠানো হবে।

ট্রেনিং: প্রথমে সব ট্রেডের জন্যই জয়েন্ট বেসিক ফেজ ট্রেনিং কর্নাটকে, সফল হলে ট্রেড ভাগ করে সেইমতো আলাদা ট্রেনিং। তারপর ট্রেড অনুযায়ী নিয়োগ।

আবেদনের ফি: ২৫০ টাকা। ডেবিট/ ক্রেডিট/ অনলাইন ব্যাঙ্কিং/ অ্যাক্সিস ব্যাঙ্কে চালান মারফত ফি জমা দিতে হবে। গত নভেম্বর বা তার পরে তোলা পাসপোর্ট মাপের রঙিন ফটো, তাছাড়া বিভিন্ন সাটিফিকেট, মার্কশিট, আধার কার্ড, বুড়ো আঙুলের ছাপ, ইত্যাদি কী-কী প্রমাণপত্রের স্ক্যান করা কপি আপলোড করতে হবে তার তালিকা ও আনুষঙ্গিক নির্দেশ পাবেন নিচের ওয়েবসাইট থেকে।

আবেদনের পদ্ধতি: www.airmenselection.cdac.in এবং www.careerindianairforce.cdac.in ওয়েবসাইটে গিয়ে অনলাইন আবেদন করতে হবে। অনলাইন আবেদন করা যাবে ২১ জানুয়ারি ২০১৯ তারিখ পর্যন্ত। অন্যান্য প্রাসঙ্গিক তথ্য উপরোক্ত ওয়েবসাইট থেকে জানা যাবে।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *