হাওড়া জেলা আদালতে গ্রুপ-‘সি’ ও ‘ডি’ পদগুলিতে নিয়োগের জন্য পরীক্ষা পদ্ধতি ও সিলেবাস-

186
0

ইংলিশ স্টেনোগ্রাফার

এই পদের জন্য তিনটি ভাগে পরীক্ষা নেওয়া হবে।

পার্ট ১ – ডিক্টেশন ও ট্র্যান্সক্রিপশন – ৪০০ নম্বর (সময় ১০ মিনিট)

পার্ট ২ – জেনারেল ইংলিশ – ১০০ নম্বর – সময় দেড় ঘন্টা।

সিলেবাস- স্পেলিং, কারেক্ট ইউজ অব ওয়ার্ডস, কারেকশন অব সেনটেন্স, কমন ফ্রেজ-এর ব্যবহার, সিনোনিমস অ্যান্ড অ্যান্টোনিমস, পাংচুয়েশান, গ্র্যামাটিক্যাল অ্যান্ড কম্প্রিহেন্সিভ নলেজ অব ইংলিশ।

পার্ট ৩ – টাইপিং ইন কম্পিউটার – ৮০ নম্বর –  ১০ মিনিট।

পার্ট ৪ – পার্সোন্যালিটি টেস্ট – পূর্বের তিনটি পার্ট পরীক্ষার পর সফল প্রার্থীদের পার্সোন্যালিটি টেস্ট-এর জন্য ডাকা হবে। ২০ নম্বরের পরীক্ষা।

পার্ট ১ ও পার্ট ২ পরীক্ষায় নেগেটিভ মার্কিং থাকবে।

 

লোয়ার ডিভিশন ক্লার্ক

পেপার ১ – ১০০ নম্বর (১০০ টি প্রশ্ন) -মাল্টিপল চয়েজ বেসড প্রশ্ন।

সিলেবাস- জেনারেল ইংলিশ, জেনারেল স্টাডিজ ও অ্যারিথম্যাটিক।

পেপার ২ –  গ্রুপ এ – রাইটিং স্কিল, গ্র্যামাটিক্যাল অ্যাকিউরেসি ও কম্প্রিহেন্সিভ নলেজে অব ইংলিশ, গ্রুপ বি – রাইটিং স্কিল, গ্র্যামাটিক্যাল অ্যাকিউরেসি ও কম্প্রিহেন্সিভ নলেজে অব বাংলা।

দুটি পরীক্ষা মিলিয়ে মোট আড়াই ঘন্টা সময়।

পার্সোন্যালিটি টেস্ট – ১০ নম্বর, কম্পিউটার টেস্ট – ১০ নম্বর

 

প্রসেস সার্ভার/ গ্রুপ ডি (পিওন,নাইট গার্ড, ফরাস)

রিটেন টেস্ট – ৯০ নম্বর – মাল্টিপল চয়েস প্রশ্ন  – সময় দেড় ঘন্টা। ১ টি ভুল উত্তর দিলে ১ নম্বর কাটা হবে।

পার্সো্ন্যালিটি টেস্ট – ১০ নম্বর

 

গ্রুপ ডি (সুইপার)—  শুধুমাত্র ৫০ নম্বরের মৌখিক পরীক্ষা নেওয়া হবে।