fbpx

রেলে ৭৯৮ ট্রেডসম্যান নিয়োগ

রেলওয়ে প্রটেকশন ফোর্স ও রেলওয়ে প্রটেকশন স্পেশ্যাল ফোর্সে কনস্টেবল (অ্যান্সিলারি) পদে ৭৯৮ জন ট্রেডসম্যান নেওয়া হবে। এমপ্লয়মেন্ট নোটিস নম্বর কনস্টেবল (অ্যান্সিলারি)/আরপিএফ-০৩/২০১৮। পদগুলির মধ্যে ওয়াটার ক্যারিয়ার, সাফাইওয়ালা, ওয়াশারম্যান, বার্বার ও গার্ডেনার পদের মূল বেতন ২১৭০০-৬৯১০০ টাকা এবং টেইলর ও কবলারের ১৯৯০০-৬৩২০০ টাকা। অন্যান্য ভাতাও আছে। অনলাইন আবেদন করা যাবে ১ জানুয়ারি বেলা ১০টা থেকে।

৫ গ্রুপে ১৬ জোন ও আরপিএসএফ: বিভিন্ন জোনাল রেলওয়েকে ভাগ করা হয়েছে ৫টি গ্রুপে, তাছাড়া আছে রেলওয়ে প্রোটেকশন স্পেশ্যাল ফোর্স: (এ) সাউথ রেল, সাউথ-ওয়েস্ট রেল, সাউথ-সেন্ট্রাল রেল। (বি) সেন্ট্রাল, ওয়েস্টার্ন, ওয়েস্ট-সেন্ট্রাল, সাউথ-ইস্ট-সেন্ট্রাল। (সি) ইস্টার্ন, ইস্ট-সেন্ট্রাল, সাউথ-ইস্ট, ইস্ট কোস্ট। (ডি) নর্দার্ন, নর্থ-ইস্টার্ন, নর্থ-ওয়েস্টার্ন, নর্থ-সেন্ট্রাল। (ই) নর্থ ফ্রন্টিয়ার। (এফ) আরপিএসএফ। আরপিএসএফ শুধুই পুরুষদের জন্য যাঁরা এই গ্রুপে চাকরি চান তাঁদের আরপিএসএফেই চাকরি করতে হবে, তবে পরে পদোন্নতির ফলে গেজেটেড পর্যায়ে উঠলে তখন কোনো জোনে নিযুক্ত হতে পারবেন।

রেলের বিভিন্ন কারখানা ইত্যাদি প্রডাকশন ইউনিটকে জুড়ে দেওয়া হয়েছে সংশ্লিষ্ট আঞ্চলিক রেলের সঙ্গে। যেমন পূর্ব রেলের মধ্যে পড়ে চিত্তরঞ্জন লোকোমোটিভ ওয়ার্কস ও কলকাতা মেট্রো রেল। উত্তর-পূর্ব রেলের মধ্যে পড়ে বারাণসীর ডিজেল লোকোমোটিভ ওয়ার্কস। এরকম ৬টি জোনের মধ্যে পড়ছে বাকি প্রডাকশন ইউনিটগুলো। সেই ৬ জোনের বাকিগুলো হল উত্তর রেল (পাতিয়ালার ডিএমডব্লু, রায়বেরিলির আরসিএফ, কাপুরথালার আরসিএফ), দক্ষিণ-পশ্চিম রেল (ইয়েলাহাঙ্কার আরডব্লুএফ), দক্ষিণ রেল (চেন্নাইয়ের আইসিএফ), পূর্ব-মধ্য রেল (বেলার আরডব্লুএফ, হার্নাউথের আরসিএফ)।

শূন্যপদের বিভাজন: বিভিন্ন গ্রুপের ভিত্তিতে শূন্যপদের বিভাজন হয়েছে। যেমন ‘সি’ গ্রুপ অর্থাৎ ইস্টার্ন, ইস্ট-সেন্ট্রাল, সাউথ-ইস্ট, ইস্ট কোস্ট রেলের জন্য কনস্টেবল (ওয়াটার ক্যারিয়ার)-এর মোট শূন্যপদ ১৯৪ (অসংরক্ষিত ৭৯, তপশিলি জাতি ১৮, তপশিলি উপজাতি ১১, ওবিসি ৮৬), কনস্টেবল (সাফাইওয়ালা)-এর মোট শূন্যপদ ৫৭ (অসং ৩৩, তঃজাঃ ৫, তঃউঃজাঃ ১, ওবিসি ১৮), কনস্টেবল (ওয়াশারম্যান)-এর মোট শূন্যপদ ৫ (অসং ৪, ওবিসি ১), কনস্টেবল (বারবার)-এর মোট শূন্যপদ ৭ (অসং ৫, তঃজাঃ ১, ওবিসি ১), কনস্টেবল (মালি)-র ১ (অসং), কনস্টেবল (টেইলর গ্রেড-থ্রি)-র মোট শূন্যপদ ৩ (অসং), কনস্টেবল (কবলার গ্রেড-থ্রি)-র ৪ (অসং ৩, ওবিসি ১)। মোট শূন্যপদের ১০% সংরক্ষিত থাকবে মহিলাদের জন্য ও ১০% প্রাক্তন সমরকর্মীদের জন্য। অন্যান্য গ্রুপের শূন্যপদের বিভাজন জানা যাবে নিচের ওয়েবসাইটে।

আবেদনের জন্য প্রয়োজনীয় যোগ্যতা, বয়সসীমা: কনস্টেবল (অ্যান্সিলারি) পদের জন্য অন্তত মাধ্যমিক/সমতুল পাশ হতে হবে, বয়স ১ জানুয়ারি ২০১৯ তারিখে ১৮-২৫ বছরের মধ্যে। জন্মতারিখ ২-১-১৯৯৪ থেকে ১-১-২০০১। বিধবা/বিবাহবিচ্ছিন্না/আইনত পতিসঙ্গ বিচ্ছিন্না মহিলা সহ সংরক্ষিত শ্রেণির ক্ষেত্রে নিয়মানুযায়ী বয়সের ছাড় আছে।

শারীরিক মান: উচ্চতা হতে হবে পুরুষদের অন্তত ১৬৫ সেমি, মহিলাদের ১৫৭ সেমি। তপশিলিরা ৫ সেমি এবং গোর্খা-গাড়োয়ালি প্রভৃতি পার্বত্য অঞ্চলের প্রার্থীরা ২ সেমি ছাড় পাবেন। ছাতির মাপ (কেবল পুরুষদের) হতে হবে না ফুলিয়ে ৮০, ফুলিয়ে ৮৫ সেমি। এক্ষেত্রে কেবল তপশিলি প্রার্থীরা ৩.৮ সেমি ছাড় পাবেন।

প্রার্থী বাছাই পদ্ধতি: প্রথমে অনলাইন কম্পিউটার ভিত্তিক পরীক্ষা হবে আগামী ফেব্রুয়ারি ও মার্চে। পরীক্ষা দেওয়া যাবে বাংলা, ওড়িয়া, অহমিয়া, উর্দু ইত্যাদি ভাষাতেও, হিন্দি বা ইংরেজিতে তো দেওয়াই যায়, মোট ১৫টি ভাষায়। ৪৫ মিনিটে ৬০ প্রশ্নের পরীক্ষা। নেগেটিভ মার্কিং আছে ১/৩ হারে। পরীক্ষায় থাকবে জেনারেল অ্যাওয়্যারনেস (২০ নম্বর), অ্যারিথমেটিক (২০ নম্বর), জেনারেল ইন্টেলিজেন্স অ্যান্ড রিজনিং (২০ নম্বর)। লিখিত পরীক্ষায় সফল হলে ফিজিক্যাল এফিশিয়েন্সি অ্যান্ড মেজারমেন্ট। তাতে থাকবে ৩ মিনিট ৪০ সেকেন্ডে ৮০০ মিটার দৌড়, ৯ ফুট লংজাম্প, ৩ ফুট হাইজাম্প। দৌড়ে ১ চান্স, অন্যদুটিতে ২টি করে চান্স। প্রাক্তন সমরকর্মীদের ফিজিক্যাল এফিশিয়েন্সি টেস্ট দিতে হবে না। ফিজিক্যাল এফিশিয়েন্সি ও মেজারমেন্ট টেস্টেও উত্তীর্ণ হতেই হবে, যদিও এর জন্য কোনো নম্বর দেওয়া হবে না। এই পরীক্ষাতেও সফল হলে ট্রেড টেস্ট। তাতেও সফল হলে ডকুমেন্ট ভেরিফিকেশন। পরীক্ষার সিলেবাস ও ট্রেড টেস্টের বিষয়ে আরও জানা যাবে ওয়েবসাইটে।

আবেদন পদ্ধতি: আবেদন করা যাবে কেবল অনলাইনে, অন্য কোনো ভাবে নয়, আগামী ১ জানুয়ারি বেলা ১০টা থেকে ৩০ জানুয়ারি রাত ১১-৫৯ পর্যন্ত। যে-কোনো একটা গ্রুপের পদের জন্য অথবা আরপিএসএফের জন্য আবেদন করা যাবে। গ্রুপের জন্য আবেদন করলে সেই গ্রুপভুক্ত জোনগুলির মধ্যে থেকে একাধিক জোনের পছন্দের ক্রম জানাতে পারবেন। একাধিক দরখাস্ত করলেই বাতিল। পছন্দের ট্রেড এবং পরীক্ষা কোন ভাষায় দেবেন তাও জানাতে হবে। আবেদনের ফি ৫০০ টাকা, তপশিলি, মহিলা, সংখ্যালঘু সম্প্রদায় ও অর্থনৈতিক পশ্চাৎপর শ্রেণির মানুষ যাঁদের বার্ষিক পারিবারিক আয় ৫০০০০ টাকার কম তাঁদের ক্ষেত্রে ফি ২৫০ টাকা (পরীক্ষায় যাঁরা বসবেন তাঁরা ৪০০ টাকা (তার থেকে ব্যাঙ্ক চার্জ বাদে) এবং তপশিলি, মহিলা প্রভৃতি প্রার্থীরা ২৫০ টাকা (ব্যাঙ্ক চার্জ বাদে) পরে ফেরৎ পাবেন। ফি দেওয়া যাবে অনলাইনে নেট ব্যাঙ্কিং/ডেবিট কার্ড/ক্রেডিট কার্ডে, কিংবা চালান ডাউনলোড করে এসবিআইয়ে নগদ জমা দিয়ে। আবেদনের সময় আপলোড করার জন্য সাম্প্রতিক পাসপোর্ট মাপের (৩৫ বাই ৪৫ মিমি) রঙিন ফটো (তার ওপর নিজের নাম ও ছবি তোলার তারিখ যেন ছাপা থাকে) জেপিজি/জেপেগ (১০০ ডিপিআই) ফর্ম্যাটে স্ক্যান করে রাখবেন। ছবি সাদা বা হাল্কা ব্যাকগ্রাউন্ডে তোলা হবে সানগ্লাস বা টুপি না পরে, স্টুডিওতে তোলানোই ভালো, মোবাইল ইত্যাদিতে তুললে বাতিল হতে পারে। অন্তত ৫০% জুড়ে পরিষ্কার মুখচ্ছবি থাকা চাই। স্ক্যান করা ইমেজের মাপ হবে ১৫-৪০ কেবির মধ্যে। এই একই ছবির আরও অন্তত ১২টি কপি নিজের কাছে তৈরি রাখবেন। তপশিলিদের ক্ষেত্রে জেপিজি/জেপেগ ফর্ম্যাটে কাস্ট সার্টিফিকেট স্ক্যান করিয়ে রাখতে হবে ৫০-১০০ কেবির মধ্যে।

দরখাস্তের শেষে একটা ডিক্ল্যারেশন কনফার্ম করতে ভুলবেন না।

এইসব খুঁটিনাটি জানা যাবে আরপিএফের http://www.indianrailways.gov.in ওয়েবসাইটে বা https://rpfonlinereg.co.in/ ওয়েবপেজে, ১ জানুয়ারি বেলা ১০টা থেকে, আবেদন করা যাবে অ্যাপ্লাই অনলাইন ট্যাবের কনস্টেবল (অ্যান্সিলারি) লিঙ্কে।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *